ঝিকরগাছায় ‘ডলার ছিনতাইকারী’ সেই ৫ পুলিশ ক্লোজড

Jessore
Share Button

যশোরের ঝিকরগাছায় বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত সুইডিশ নাগরিক দম্পতির কাছ থেকে হাতিয়ে নেওয়া ৩ হাজার ডলার ফেরত দেওয়া হয়েছে। তবে ডলার ফেরত দেওয়ার পর ওই দম্পতির কাছ থেকে এই বলে লিখিত নেওয়ার চেষ্টা করা হচ্ছে যে, ‘ডলারগুলো পুলিশ নেয়নি, বাড়ি ফিরে নিজেদের ব্যাগেই তারা সেগুলো খুঁজে পেয়েছেন। এর সঙ্গে পুলিশ জড়িত নয়।’

এদিকে, ওই ঘটনায় ঝিকরগাছা থানার এসআই এজাজ আহম্মেদসহ পুলিশের পাঁচ সদস্যকে পুলিশলাইনে ক্লোজড করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

নড়াইল জেলার কালিয়ার খুকুমনি পারভীন (সুইডিশ পাসপোর্ট নম্বর ৯০৬০২৩০৬) ২৬ বছর ধরে সুইডেনে থাকেন। পেশায় একজন সেবিকা। তার স্বামী ইঞ্জিনিয়ার মিজানুর রহমানও সুইডেনের নাগরিক। তিনি সেখানে আছেন ২৭ বছর ধরে। ১৪ ডিসেম্বর তারা দু’জন দেশে আসেন। এরপর ১ জানুয়ারি ভারতে বেড়াতে যান খুকুমনি।

বৃহস্পতিবার বিকেল ৩টায় বেনাপোল চেকপোস্ট দিয়ে দেশে ফেরেন তিনি। তাকে আনতে যান স্বামী মিজানুর রহমান। দু’জনে একটি ট্যাক্সি ভাড়া করে বেনাপোল থেকে নড়াইলের উদ্দেশে রওনা হন। পথে যশোর-বেনাপোল সড়কের ঝিকরগাছার পাঁচপুকুর এলাকায় পুলিশের একটি টিম চেকিংয়ের নামে তাদের গাড়ি থামায়।

এরপর তার হাতব্যাগে থাকা তিন হাজার ইউএস ডলার ছিনিয়ে নেয় পুলিশ। একই সঙ্গে ওই দম্পতির সঙ্গে দুর্ব্যবহারও করা হয়।

সেখান থেকে ছাড়া পেয়ে খুকুমনি সরাসরি যশোর প্রেসক্লাবে গিয়ে সাংবাদিকদের কাছে অভিযোগ করেন, চেকিংয়ের সময় সুইডিশ পাসপোর্ট দেখানোর পরও পুলিশ তাদের সাথে চরম দুর্ব্যবহার করে। তার কাছে থাকা ছোট পার্সটি পর্যন্ত তন্নতন্ন করে দেখেন তারা।

এ সময় সেখান থেকে পুলিশ সদস্যরা তিন হাজার ডলার বের করে নেন ও নানারকম হুমকি-ধমকি দেন। দীর্ঘদিন সুইডেনে থাকা এ দম্পতি পুলিশের আচরণে ভীত-সন্ত্রস্ত হয়ে দ্রুত ওই এলাকা ত্যাগ করেন।

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts

Leave a Comment