পটিয়ায় ক্লাসে ঢুকে শিক্ষিকার পা ভেঙে দিল বখাটে

শিক্ষিকার পা ভেঙে দিল বখাটে
Share Button

চট্টগ্রামের পটিয়া উপজেলার দক্ষিণ ভূষি ইউনিয়নের পূর্ব ডেঙ্গামারা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পাঠদানরত অবস্থায় শাবল দিয়ে পিটিয়ে শিক্ষিকা মিসফা সুলতানার পা ভেঙে দিয়েছে এক বখাটে। মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

আহত শিক্ষিকা একই উপজেলার জঙ্গলখাইন ইউনিয়েনের নাইখাইন গ্রামের সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার নুর মোহাম্মদের মেয়ে।

প্রতিদিনের ন্যায় আমার মেয়ে স্কুলে ক্লাস নিচ্ছিল। এসময় ওই এলাকার আহসান উল্লাহ টুটুল নামে এক যুবক ক্লাসে ঢুকে খন্তি দিয়ে পিটিয়ে আমার মেয়ের দুই হাত ও বাম পা ভেঙে দিয়েছে এবং গলায় আঘাত করেছে। ক্লাসে ঢুকে আমার মেয়েকে ছেলেটি দৌঁড়ে দৌঁড়ে পিটিয়েছে। এমনকি নিজেকে রক্ষার জন্য মিসফা যখন প্রধান শিক্ষকের রুমে যায়, সেখানে গিয়েও ওই ছেলে আমার মেয়েকে মারাত্মকভাবে জখম করেছে। এভাবে মেয়ের ওপর বখাটে যুবকের হামলার বর্ণনা দেন আহত স্কুল শিক্ষিকার বাবা মুক্তিযোদ্ধা নুর মোহাম্মদ।

স্থানীয়রা উদ্ধার করে প্রথমে তাকে গুরুতর আহত অবস্থায় পটিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করায়। পরবর্তীতে সেখান থেকে চমেক হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পুলিশ ফাঁড়ির নায়েক রসিক চাকমা জানান, পটিয়া থেকে আহত অবস্থায় মিসফা সুলতানা নামে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের এক শিক্ষিকাকে ভর্তি করা হয়েছে। তাকে ক্লাসে ঢুকে এক বখাটে মারধর করেছে। বর্তমানে চমেক হাসপাতালের ২৬নং ওয়ার্ডে তার চিকিৎসা চলছে।

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts