বাগেরহাট শহরে দুই যুবকের মরদেহ উদ্ধার

বাগেরহাট জেলা
Share Button

বাগেরহাট শহরের সায়েম কাজীর বাড়ির সামনের পুরাতন সুপারী পট্টি গলি থেকে মামুন পালোয়ান (৩২) ও বাসাবাটি বাইনে পাড়া থেকে তপন কুমার শীল নামের দুই যুবকের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার রাত পৌনে ৮ টার দিকে বাগেরহাট শহরের বাজার মেইন রোড থেকে প্রায় একশ ফুট দূরে অন্ধকারাছন্ন ওই গলিতে গলায় ফাস দেওয়া অবস্থায় মামুন পালোয়ান (৩২) এর মরদেহ পাওয়া যায়।

তিনি রেলস্টেশন এলাকার ধলু পালোয়ানের ছেলে। পুলিশ খবর পেয়ে মরদেহ উদ্ধার করে মর্গে পাঠায়।

মাছ বাজারের ব্যবসায়ীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে মাছ বিক্রেতা মামুন পালোয়ান প্রায়ই মাছ বাজারের লোকদের মারপিট করতেন। মামুন মাদক সেবনকারী হিসেবেও বেশ পরিচিত থাকায় ভয়ে বাজারের অন্য দোকানিরা তাকে এড়িয়ে চলতো।

স্থানীয় লোকজন জানায়, তাকে কেউ মেরে মরদেহ জানালার সঙ্গে ঝুলিয়ে রাখতে পারে। তবে পুলিশ প্রাথমিক ভাবে ঘটনাকে আত্মহত্যা বলে ধারণা করছে।

অপরদিকে, রাতে শহরের বাসাবাটি এলাকার বাইনে পাড়ার বাসিন্দা তপন শীলকে পিটেয়ে হত্যার অভিযোগ করেছেন নিহতের স্ত্রী আখি শীল।

বৃহস্পতিবার জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে মামলার আসামিরা জামিন পেয়ে তাকে পরিকল্পিত ভাবে দোকান থেকে ধরে নিয়ে পিটিয়ে হত্যা করেছে বলে তপনের পরিবার দাবি করেছে।

বৃহস্পতিবার রাতে নিহতের স্ত্রী আখি শীল জানান, জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধকে কেন্দ্র করে তপনের ভায়েরা হৃদয়ের নামে আদালতে কয়েক মাস আগে মামলা দায়ের করনে। ওই মামলায় হৃদয়সহ তার লোকজন আটক হয়ে কয়েকদিন আগে আতালত থেকে জামিনে মুক্ত হন।

বৃহস্পতিবার ওই মামলার আসামিরাই তপনকে পিটিয়ে হত্যার পর মুখে কীটনাশক ঢেলে তপন আত্মহত্যা করেছে বলে প্রচারণা চালায়।

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts