ময়মনসিংহে আ’লীগ নেতার শিশু নির্যাতন [ভিডিওসহ]

ময়মনসিংহে আ'লীগ নেতার শিশু নির্যাতন
Share Button

ময়মনসিংহে মোবাইল ফোন ছিনতাইয়ের অভিযোগে এক শিশুকে পিটিয়ে আহত করেছেন আওয়ামী লীগের এক নেতা। বুধবার দুপুরে শহরের পাটগুদাম বাসস্ট্যান্ডে এ ঘটনা ঘটে।

এসময় শিশু নির্যাতনের ভিডিও ধারণ করে ছড়িয়ে দেয়া হলে শহরে তোলপাড় সৃষ্টি হয়। নির্যাতনের শিকার শিশু সাদ্দাম (১০) শহরের কৃষ্টপুর সরকারি বস্তিতে থাকে। সে বস্তিবাসী পারভীন আকতারের ছেলে। আর নির্যাতনকারী সফিরউদ্দিন সরু কৃষ্টপুর দক্ষিণপাড়া কমিউনিটি পুলিশের উপদেষ্টা এবং ১৮ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি।

সিলেটে রাজন, খুলনায় রাকিব হত্যার পর সম্প্রতি রাজশাহীর পবায় জাহিদ হাসান ও ইমন আলীকে মোবাইল ফোন চুরির অভিযোগে নির্যাতনের রেশ কাটতে না কাটতেই একই কায়দায় বর্বর শিশু নির্যাতনের ঘটনা ময়মনসিংহে ঘটলো।

সাদ্দামের মা পারভীন আকতার জানান, বুধবার দুপুরের দিকে নেত্রকোনার শ্যামগঞ্জে খালার বাসায় বেড়াতে যাওয়ার পথে পাটগুদাম এলাকায় সফিরউদ্দিন সরুসহ কয়েকজন ব্যক্তি তার ছেলেকে মারধর করে।

এসময় ট্রাফিক পুলিশের লাঠি দিয়েও তাকে পেটানো হয়। তারা সাদ্দামের বিরুদ্ধে মোবাইল ফোন ছিনতাইয়ের অভিযোগ করে।

খবর পেয়ে কোতোয়ালি থানার এসআই রুকন গিয়ে সাদ্দামকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যান। সন্ধ্যার দিকে থানায় মুচলেকা দিয়ে ছেলেকে ছাড়িয়ে আনেন তিনি। পারভীন আকতার আরো জানান, তার স্বামী জলিল মারা যাওয়ার পর থেকে তিনি কাগজ কুড়িয়ে ছেলেকে নিয়ে কোনোমতে দিনযাপন করেন। তার ছেলে চোর নয় বলে দাবি করেন এবং ছেলেকে নির্যাতনের বিচার চান।

এদিকে, আওয়ামী লীগ নেতা সফির উদ্দিন সরু সাংবাদিকদের বলেন, ওই এলাকায় এক নারীর মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নেয়ার অপরাধে সাদ্দামকে আমি চড় থাপ্পড় দিয়েছি। সে ‘পেশাদার ছিনতাইকারী’। পরে তাকে থানায় পুলিশের হাতে সোপর্দ করি।

ময়মনসিংহ কোতোয়ালি মডেল থানার ওসি মো. কামরুল ইসলাম সাদ্দামকে ‘পেশাদার ছিনতাইকারী’ হিসেবে উল্লেখ করে জানান, এর আগেও সাদ্দাম তিন-চার বার ধরা পড়ে থানায় এসেছে। এটি একটি ‘ছোট ঘটনা’। এঘটনায় বৃহস্পতিবার রাতে সাদ্দামের মা কোতোয়ালী থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। তবে কারো নাম উল্লেখ করা হয়নি।

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

ময়মনসিংহে আ’লীগ নেতার শিশু নির্যাতন ভিডিও-

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts

Leave a Comment