সিলেটে হামলার দায় স্বীকার করেছে আইএস, নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৬

বোমা হামলা
Share Button

সিলেটের দক্ষিণ সুরমার শিববাড়িতে জঙ্গি আস্তানার পাশে পরপর দুইটি বোমা বিস্ফোরণে নিহতের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। এসব ঘটনায় পুলিশসহ নিহতের সংখ্যা বেড়ে ছয়জনে দাঁড়িয়েছে। এক সেনা কর্মকর্তাসহ আরও কয়েকজন আশঙ্কাজনক অবস্থায় ঢাকা ও সিলেটে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

এদিক, জঙ্গিবিরোধী ওই অভিযানের মধ্যে বোমা বিস্ফোরণের দায় স্বীকার করেছে জঙ্গিগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেট (আইএস)। আইএসের কথিত বার্তা সংস্থা ‘আমাক’ এর বরাত দিয়ে রাতেই যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক প্রতিষ্ঠান সাইট ইন্টেলিজেন্স গ্রুপ এ তথ্য জানিয়েছে।

ওই পৃথক বিস্ফারণে র‌্যাব-পুলিশ, সাংবাদিক, ব্যবসায়ী ও উৎসুক জনতাসহ ৪০ জন আহত হয়েছেন। এদের মধ্যে অন্তত ছয়জনের অবস্থা গুরুতর বলে চিকিৎসকরা জানিয়েছেন।

শনিবার সন্ধ্যা পৌনে ৭টা ও সাড়ে ৭টায় দুটি বোমা বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। ধারণা করা হচ্ছে, প্রথম বোমাটি জঙ্গিদের হামলার মাধ্যমে ঢাকা-ফেঞ্চুগঞ্জ-মৌলভীবাজার আঞ্চলিক সড়কের গোটাটিকর ইসলামিয়া দাখিল মাদরাসা সংলগ্ন পুলিশ চেকপোস্টে বিস্ফোরিত হয় এবং দ্বিতীয়টি উদ্ধারের সময় বিস্ফোরিত হয়।

শনিবার রাত ১১টা পৃর্যন্ত পুলিশের আদালত পরিদর্শক (সিএসআই), চৌধুরী আবু মো. কয়ছর, ঝালোপাড়া এলাকার ছাত্রলীগ কর্মী অহিদুল ইসলাম অপু, সিলেট নগরের জল্লারপারের দাড়িয়াপাড়া এলাকার প্রাইম লাইটিং অ্যান্ড ডেকোরেটার্সের মালিক শহিদুল ইসলাম এবং ৩৫ বছরের এক অজ্ঞাত যুবকসহ মোট ৪ নিহত হন। এর মধ্যে অপু ও কয়ছর ঘটনাস্থলে এবং অপর দুজন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।

সর্বশেষ রাত আড়াইটার দিকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মহানগর পুলিশের জালালাবাদ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মনিরুল ইসলাম ও দক্ষিণ সুরমা ডিগ্রি কলেজেছাত্র ছাত্রলীগ নেতা জান্নাতুল ফাহিম মারা যান। এনিয়ে নিহতের সংখ্যা ছয়ে দাড়ালো।

সিলেট মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (গণমাধ্যম) জেদান আল মুসা হতাহতের খবর নিশ্চিত করেছেন।

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts