সেলিম ওসমানকে কান ধরে উঠবস করাবেন লোহানী!

সেলিম ওসমানকে কান ধরে উঠবস করাবেন লোহানী!

নারায়ণগঞ্জের মাটিতেই সংসদ সদস্য (এমপি) সেলিম ওসমানকে কান ধরে উঠবস করানোর ঘোষণা দিয়েছেন উদীচী শিল্পী গোষ্ঠীর সভাপতি কামাল লোহানী।

শিক্ষক শ্যামল কান্তি ভক্তকে লাঞ্ছনার অভিযোগ এনে শুক্রবার বিকেলে নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবের সামনে আয়োজিত মানববন্ধনে তিনি এ ঘোষণা দেন।

কামাল লোহানী বলেন, ‘যারা জুলুম অত্যাচার করে, তারা কখনো পার পায় না। যখন সাধারণ মানুষ ক্ষিপ্ত হয় তখন সাধারণ মানুষের হাতেই তাদের শাস্তি হয়। তাই এ নারায়ণগঞ্জের মাটিতেই সেলিম ওসমানকে কান ধরে উঠবস করানো হবে।’

শিক্ষককে লাঞ্ছিত করায় ক্ষোভ প্রকাশ করে কামাল লোহানী বলেন, ‘সেলিম ওসমানকে বুঝাতে হবে, সে যে মানুষটিকে শাস্তি দিয়েছে তিনি ভবিষ্যত প্রজন্মের বাংলাদেশ গড়ার কাজ করেন। সে তাকে লজ্জিত করেনি বরং সমগ্র বাংলাদেশকে লজ্জিত করেছে। একই সঙ্গে কষ্ট পাচ্ছি। আজকে এমপি সেলিম ওসমান ধর্মের দোহাই দিয়ে সম্প্রদায়িক উসকানিতে মানুষকে আমাদের হিন্দু ভাইদের বিরুদ্ধে লেলিয়ে দিচ্ছে।’

ওসমান পরিবারের প্রসঙ্গ তুলে উদীচী শিল্পী গোষ্ঠীর সভাপতি বলেন, ‘শামীম ওসমানের কাহিনী ঢাকা পড়ে যাবে না। সাত খুনের মামলা চলছে, তাই তিনি একটু চুপ করে আছেন। যদি ফাঁস হয়ে যায় সব কিছু। আর সেখানে আরো ইবলিশের তৈরি হয়েছে। এই যে সেলিম ওসমান, তিনি নতুন কায়দা বের করলেন।’

হেফাজতের সঙ্গে সম্পৃক্ততার অভিযোগ তুলে সেলিম ওসমানকে উদ্দেশ করে কামাল লোহানী বলেন, ‘আপনার ভাই শামীম ওসমান হেফজাতের মিছিলে পানি খাইয়েছেন। আপনার পার্টির নেতা এরশাদ হেফজাতে পানি বিতরণ করেছিলেন। এতে তিনি বিব্রত বোধ করেছিলেন। কিন্তু এরপর তিনি কী বোধ করবেন তা জানেন না।’

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ প্রসঙ্গে কামাল লোহানী বলেন, ‘প্রতি সপ্তাহে বিভিন্ন মসজিদে গিয়ে তিনি বলেন, হুজর গতকাল রাতে স্বপ্নে দেখেছি, তাই নামাজ পড়তে এসেছি। কিন্তু সপ্তাহ খানেক আগেই তিনি লোক পাঠিয়ে পরিবেশ দেখেন, বোঝেন, তারপর যান। আর সে রকম নেতার শিষ্যই তো আপনি।’

এদিকে, উদীচী শিল্পী গোষ্ঠীর মানববন্ধন চলাকালে সেখানে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা জমায়েত হলে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। পরে পুলিশ দুই পক্ষকে বেষ্টনী দিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। তাছাড়া রাজধানী থেকে আসা নেতাদেরও পরে পুলিশ প্রহরায় ঢাকায় পাঠানো হয়।

নারায়ণগঞ্জ সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি জিয়াউল ইসলাম কাজলের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক ধীমান সাহা জুয়েলর সঞ্চালনায় মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জ খেলাঘর আসরের সভাপতি রথিন চক্রবর্তী, নারায়ণগঞ্জের সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব রফিউর রাব্বি, খেলাঘর কেন্দ্রীয় আসরের সাধারণ সম্পাদক মোখলেসুর রহমান সাগর, উচীচী শিল্পী গোষ্ঠীর সহসাধারণ সম্পাদক জামসেদ আনোয়ার তপন, গণজাগরণ মঞ্চের সংগঠক জীবনানন্দ জয়ন্ত, অভিনয় শিল্পী ও সাবেক ছাত্র নেতা সুমনা, সাবেক ছাত্র নেতা আক্রমুল হক, বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়নের সাবেক সভাপতি খান আসাদুজ্জামান মাসুম, বাংলাদেশ যুব ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক শিশির চক্রবর্তী, নারায়ণগঞ্জ নাগরিক কমিটির সাধারণ সম্পদাক আব্দুর রহমান প্রমুখ।

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts