সোহাগী জাহান তনুর লাশ আবার ময়নাতদন্তের নির্দেশ

sohagi jahan tonu

কুমিল্লা সরকারি ভিক্টোরিয়া কলেজের ইতিহাস দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী ও নাট্যকর্মী সোহাগী জাহান তনুর লাশ আবার ময়নাতদন্তের জন্য নির্দেশ দিয়েছেন কুমিল্লার অতিরিক্ত চিফ ম্যাজিস্ট্রেট জয়নাব বেগম। পুলিশের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে তিনি আজ সোমবার এ আদেশ দেন।

কুমিল্লায় তনু মঞ্চ

কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজের শহীদ মিনার প্রাঙ্গণকে ‘তনু মঞ্চ’ ঘোষণা করেছেন আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা। আজ বেলা ১১টার দিকে ভিক্টোরিয়া কলেজ থিয়েটারের কর্মীরা এই ঘোষণা দেন। একই সঙ্গে তাঁরা হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত ব্যক্তিদের যত দিন পর্যন্ত গ্রেপ্তার করা না হবে, তত দিন এ মঞ্চ আন্দোলন চালিয়ে যাবে বলে ঘোষণা দেন।

এ ছাড়া রাজধানীসহ দেশের কয়েকটি জেলার বিভিন্ন স্থানে বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও রাজনৈতিক সংগঠন বিক্ষোভ, সমাবেশ, মানববন্ধন ও গণস্বাক্ষর কর্মসূচির আয়োজন করেছে। বিভিন্ন আয়োজনে বক্তারা বলেন, সেনানিবাসের মতো এলাকায় কোনো মেয়েকে ধর্ষণের পর হত্যার ঘটনা সত্যিই উদ্বেগজনক। এ হত্যাকাণ্ড চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিচ্ছে এ দেশে একজন নারী কতটা অনিরাপদ।

সোহাগী জাহান তনু হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় তাঁর মা-বাবা ও চাচাতো বোনকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছেন আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা। তাঁরা অভিযোগ করেন, সোহাগীর সঙ্গে ভিক্টোরিয়া কলেজের কোনো শিক্ষার্থীর প্রেমের সম্পর্ক ছিল—এমন স্বীকারোক্তি আদায়ে তাঁদের চাপ দেওয়া হচ্ছে।

সোহাগীর মা আনোয়ারা বেগম, বাবা মো. ইয়ার হোসেন ও চাচাতো বোন লাইজু জাহানের সঙ্গে গতকাল রোববার কুমিল্লা ক্যান্টনমেন্ট বোর্ডের অতিথিকক্ষে কথা হয়। তাঁরা সেনানিবাস এলাকা থেকে বেরিয়ে মুরাদনগরের মির্জাপুরের গ্রামের বাড়িতে ফিরে যাওয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করেন।

২০ মার্চ রাতে কুমিল্লা সেনানিবাস এলাকায় সোহাগী খুন হওয়ার সাত দিন পরও সন্দেহভাজন কাউকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। গত শুক্রবার রাতে ও শনিবার সোহাগীর পরিবারের সদস্যদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়।

পরিবারের সদস্যরা জানান, ২০ মার্চ রাত সাড়ে ১০টার দিকে সোহাগীর লাশ সেনানিবাসে তাঁদের বাসার দুই-তিন শ গজ দূরে উদ্ধার হয়। খুন করার আগে হত্যাকারীরা সোহাগীর মাথার হিজাব টেনে খুলে ফেলে, মাথার লম্বা চুল কাঁচি দিয়ে কেটে ফেলে।

সোহাগী হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় তাঁর বাবা ক্যান্টনমেন্ট বোর্ডের কর্মচারী ইয়ার হোসেন অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিদের নামে কোতোয়ালি মডেল থানায় হত্যা মামলা করেন। মামলাটি শুক্রবার পুলিশের গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) কাছে হস্তান্তর করা হয়।

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts

Leave a Comment