হবিগঞ্জে মায়ের কোল থেকে ছিনিয়ে নিয়ে শিশুকে হত্যা

হবিগঞ্জে মায়ের কোল থেকে ছিনিয়ে নিয়ে শিশুকে হত্যা

হবিগঞ্জ সদরে মায়ের কোল থেকে ছিনিয়ে নিয়ে প্রমি নামে এক বছরের এক শিশুকে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

উপজেলার লস্করপুর ইউনিয়নের মশাজান নোয়াবাদ এলাকায় রবিবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত প্রমি ওই এলাকার আশরাফ আলীর মেয়ে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, মশাজান নোয়াবাদ এলাকায় খোয়াই নদীর পাড়ে আজমত আলীর একটি জায়গা লিজ নেন শহরের ছাত্রলীগ নেতা নূরুজ্জামান জাকির, ফরহাদ, মুসা আহমেদ রাজু ও রনি। তারা বেশ কিছু দিন ধরে ওই স্থানটি থেকে বালি উত্তোলন করে আসছিলেন।

কিন্তু শনিবার বিকেলে একই এলাকার মন্নর আলী ও মোস্তর আলী বালি উত্তোলনে বাধা দেন। এ নিয়ে তাদের মধ্যে বাকবিতণ্ডা হয়। এক পর্যায়ে উভয়পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। খবর পেয়ে সদর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে গিয়ে নিয়ন্ত্রণে আনে।

রাতেই আমজত আলী বাড়ি-ঘরে হামলা, ভাঙচুর ও বেশ কিছু গাছ কাটার অভিযোগ এনে মন্নর আলীর বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে রবিবার রাতে মন্নর আলীর লোকজন আমজত আলী ও তার ভাই আশরাফ আলীর বাড়িঘরে হামলা চালায়।

হামলা চলাকালে দুর্বৃত্তরা আশরাফ আলীর স্ত্রী আছমা খাতুনের কোল থেকে তার শিশু কন্যা প্রমি আক্তারকে ছিনিয়ে নিয়ে ছুড়ে মেরে হত্যা করে বলে হাসপাতালে সাংবাদিকদের জানান আছমা খাতুন।

তিনি বলেন, ‘দুর্বৃত্তরা যখন বাড়িঘরে হামলা চালায় তখন আমি আমার মেয়ে প্রমিকে নিয়ে দৌড়ে ঘরের বাইরে চলে যাই। তখন হামলাকারীদের একজন আমার কোল থেকে মেয়েকে ছিনিয়ে নিয়ে ছুড়ে পেলে দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়।’

তার কোল থেকে শিশুটিকে কে ছিনিয়ে নিয়ে ছুড়ে ফেলেছে এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘রাতের অন্ধকারে আমি তাকে ছিনতে পারিনি।’

এ ব্যাপারে হবিগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নাজিম উদ্দিন জানান, পুলিশ লাশ উদ্ধার করে হবিগঞ্জ মর্গে পাঠিয়েছে। শিশুটির গায়ে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।’

এদিকে তাৎক্ষণিক এ খবর পেয়ে জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শহিদুল ইসলাম, সহকারি পুলিশ সুপার মাকসুদুর রহমান মনির, ওসি নাজিম উদ্দিন সদর হাসপাতালে ছুটে যান। এ সময় তারা নিহতের পরিবারকে সান্ত্বনা দেন এবং জড়িতদের শাস্তির আশ্বাস দেন।

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts

Leave a Comment