আওয়ামী লীগ নেতার ফ্লাটে দেহ ব্যবসা!‌

দুবাইয়ে ২ বাংলাদেশি কিশোরীকে দিয়ে জোরপূর্বক দেহব্যবসা
Share Button

লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে পৌরসভার ১নং ওয়ার্ডের আওয়ামী লীগ সভাপতি ও কাউন্সিলর আহসান মালের ফ্ল্যাটে অচেনা দুই নারীকে নিয়ে তোলপাড় শুরু হয়েছে।

বুধবার রাতে পৌরসভার নতুন বাজারের খাজুরতলা এলাকায় ওই কাউন্সিলরের ফ্ল্যাট থেকে দুই নারীকে আটক করে এলাকাবাসী। এসময় আরও এক যুবককে আটক করা হয়।

প্রবাসী সুমনের কাছ থেকে নতুন বাজারের খাজুরতলা এলাকার ওই ফ্ল্যাটটি কিনে নেন কাউন্সিলর আহসান মাল। তিনি ওই বাসায় দীর্ঘদিন ধরে গোপনে অসামাজিক কার্যক্রম চালিয়ে আসছিলেন বলে অভিযোগ করে এলাকাবাসী।

স্থানীয় ব্যবসায়ী মিঠু চৌধুরীসহ কয়েকজন জানান, ১ মার্চ ফরিদগঞ্জের নাসিমা ও ঢাকার সাভারের ফুলবাড়িয়া গ্রামের সালমা ওই বাসা নেন। বুধবার রাতে ওই বাসায় বহিরাগত যুবকদের আনাগোনা সন্দেহ হওয়ায় স্থানীয় লোকজন এক যুবকসহ দুই নারীকে আটক করে। পরে রাতে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

আহসান মাল বলেন, জাতীয় পরিচয়পত্র না নিয়ে দুই নারীকে বাসা ভাড়া দেয়া ঠিক হয়নি। একটা ছেলেসহ দুই নারীকে আটকের ঘটনা স্থানীয়দের কাছ থেকে জানতে পারি।

তিনি বলেন, তাৎক্ষনিক বাসায় গিয়ে তাদের কাছে জাতীয় পরিচয়পত্র চাওয়া হয়। তারা দিতে না পারায় তাদেরকে বাসায় থেকে বের করে দেয়া হয়েছে।

আমার প্লাটে কোনো অসামাজিক কার্যক্রম হয় না বলে দাবি করে আওয়ামী লীগের ওই নেতা বলেন, এলাকার কিছু লোক আমার বিরুদ্ধে মিথ্যাচার করছে।

রায়পুর থানার ওসি লোকমান হোসেন বলেন, ‘এই ঘটনা সর্ম্পকে আমি কিছু জানি না।’

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts