থার্টিফার্স্ট নাইট নিয়ে স্বল্প বসনা সুন্দরী তরুণীদের প্রস্তুতি

স্বল্প বসনা সুন্দরী তরুণী

প্রতি বছরই থার্টিফার্স্ট নাইটকে ঘিরে অনেক আগে থেকেই চলে জোর প্রস্তুতি। এবারও নতুন ইংরেজি বছরকে বরণ করে নেয়ার জন্য রাজধানী ঢাকাসহ সারাদেশ বর্ণিল সাজে সাজা শুরু করেছে। চলছে ব্যাপক প্রস্তুতি। ৩১শে ডিসেম্বর রাতে চোখ ধাঁধানো সব আয়োজনে বর্ণিল হয়ে উঠবে দেশের বড় বড় হোটেল-ক্লাবগুলো। তারুণ্য ভাসবে বাঁধভাঙা জোয়ারে।

এদিকে এই রাতকে স্মরণীয় করে রাখতে ডিজেদের প্রস্তুতিও সম্পন্ন হয়েছে। রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন অভিজাত ও বিলাসবহুল হোটেল-ক্লাবে দেশী বিদেশী নারী ও পুরুষ ডিজেরা মাতাবেন রাতভর। বসবে স্বল্প বসনা সুন্দরী তরুণীদের মেলা। কারো পরনে থাকবে জিন্স টি-শার্ট, কারো থাকবে শর্টস। মুখে কড়া মেকআপ। হাতে বিয়ারের বোতল। কক্ষভরা মদ্যপ দর্শক। ছোট কক্ষগুলো সিগারেট, গাঁজা আর সিসার ধোঁয়ায় অন্ধকার। ঘরময় রংবেরঙের আলো, লেজার রশ্মি আর কান ফাটানো মিউজিকের সাথে গান-‘আই অ্যাম ডিসকো ড্যান্সার।’ গান আর মিউজিকের তালে তালে আলো আঁধারিতে চলবে নারী-পুরুষের বেসামাল জড়াজড়ি।

হাইসোসাইটির কলগার্ল, ড্যান্সারের মহাসমারোহ ঘটবে এ রাতে। নাচ-গান আর হাস্যরসে ক্লাব ও হোটেলগুলো পরিণত হবে মধুকুঞ্জে।
তবে, থার্টিফার্স্ট নাইট উপলক্ষে ঢাকাসহ সারাদেশে নিরাপত্তা ব্যবস্থাও জোরদার করা হচ্ছে। থার্টিফাস্ট নাইটে যেকেনো ধরনের অনাকাঙ্খিত ঘটনা রোধে ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপির) ওসিদের বিশেষ সর্তকতার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।শনিবার ডিএমপির মাসিক অপরাধ পর্যালোচনা সভায় ঊর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তারা মাঠ পর্যায়ে পুলিশ কর্মকর্তাদের এসব নির্দেশনা দেন।থার্টিফাস্ট নাইটের অনুষ্ঠানগুলো নিবিঘ্নে করতে এখন থেকেই নজরদারির নির্দেশ দেন। পাশাপাশি এ দুটি বড় অনুষ্ঠান ঘিরে নিরাপত্তা বলয় গড়ে তোলারও নির্দেশনা দেন ঢাকা মহানগর পুলিশ কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া।

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts