বিয়ে করেই কিশোরী স্ত্রীকে বেঁচে দিলো স্বামী!

স্ত্রীকে বেচে দিলেন স্বামী
Share Button

মাত্র ১৪ বছর বয়সী নাবালিকাকে বিয়ে করলেন। তারপর নগদ ৫০ হাজার রুপির বিনিময়ে বেচে দিলেন। বিক্রির লেনদেন সেরেই লাপাত্তা স্বামী।

অমানবিক এই ঘটনা ঘটেছে ভারতের মুম্বাইয়ের মালাদে। সম্প্রতি ঘটলেও বিষয়টি সংবাদমাধ্যমে এসেছে বৃহস্পতিবার (২৮ জুলাই)।

সংবাদমাধ্যম জানায়, ওই নাবালিকা দিল্লির বাসিন্দা। তার বাবা-মা নেই। দিল্লির একটি অনাথ‍াশ্রমেই বড় হয়েছে সে। তাকে বাড়ি নিয়ে যাওয়ার কথা বলে মাসখানেক আগে এক আত্মীয় অনাথ‍াশ্রম থেকে ছাড়িয়ে আনেন।

তারপর দিল্লিবাসী এক ব্যক্তির সঙ্গে জবরদস্তি করে বিয়ে দিয়ে দেন সেই আত্মীয়। স্বামী তাকে চাকরির প্রতিশ্রুতি দিয়ে দিল্লি থেকে মুম্বাই নিয়ে আসেন। এখানে এনেই একটি আবাসিক এলাকার এক নারীর কাছে ৫০ হাজার রুপির বিনিময়ে বেচে দেন স্ত্রীকে। তারপর থেকে নাবালিকা স্ত্রীর সঙ্গে আর কোনো যোগাযোগ রাখেননি স্বামী।

এদিকে নাবালিকার ক্রেতা নারী তার ওপর চালাতে থাকেন নিপীড়ন। বাড়ির যাবতীয় সব কাজ করাতে থাকেন তাকে। রাখতে থাকলেন উপবাস। পান থেকে চুন খসলেই সমানে মার শুরু করতেন।

নিপীড়ন সীমা ছাড়াতে থাকায় নাবালিকা একসময় এলাকার নিরাপত্তারক্ষীদের সব খুলে বলে। পরে নিরাপত্তারক্ষীরা তাকে পুলিশে অভিযোগ জানানোর পরামর্শ দেন।

কিন্তু মুম্বাইয়ের রাস্তাঘাট তার কাছে ছিল অজানা। তাই নালিশ করতে বাড়ি থেকে বেরিয়ে এলেও দিনকয়েক রাস্তায় রাস্তায় ঘুরপাক খেতে থাকে নাবালিকা। পরে পুলিশই তাকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। সেসময় তার মাথাসহ দেহের বিভিন্ন অংশে জখম দেখা যায়।

সংবাদমাধ্যম আরও জানায়, নাবালিকার অভিযোগের ভিত্তিতে তার স্বামী এবং আবাসনের ওই নারীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে তদন্ত শুরু করেছে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী।

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts