শাশুড়িকে গণধর্ষণ

Rape logo 1
Share Button

শাশুড়িকে ধর্ষণের অভিযোগ ছিল আগেই। তা নিয়ে মামলার সাক্ষ্যদানের আগেই দলবল নিয়ে বাড়িতে চ়ড়াও হয়ে শাশুড়িকে ফের গণধর্ষণের পরে পুড়িয়ে মারার চেষ্টার অভিযোগ উঠল জামাইয়ের বিরুদ্ধে। রবিবার হাওড়ার চ্যাটার্জিহাটের ঘটনা। অভিযুক্ত রিঙ্কু তিওয়ারি নিগৃহীতার স্বামীর প্রথম পক্ষের মেয়েকে বিয়ে করেছেন।

পুলিশ সূত্রে খবর, নিগৃহীতার স্বামী পেশায় পরিবহণ ব্যবসায়ী। তাঁর প্রথম পক্ষের মেয়ে মামণির বিয়ে হয় তিলজলার বাসিন্দা রিঙ্কুর সঙ্গে। বাবার ব্যবসা সামলাচ্ছিলেন মেয়ে-জামাই। ব্যবসায়ীর অভিযোগ, রিঙ্কু ২৬ লক্ষ টাকা আত্মসাৎ করায় প্রতিবাদ করেন তাঁর দ্বিতীয় পক্ষের স্ত্রী। ‘শিক্ষা’ দিতে গত নভেম্বরে ওই মহিলাকে ধর্ষণ করে রিঙ্কু। ছবি তুলে ব্ল্যাকমেলও করে মামণি।

ওই ব্যবসায়ীর অভিযোগে মামণি গ্রেফতার হয়ে কিছু দিন পরে ছাড়া পায়। আগামী ২৪ জুন নিগৃহীতার সাক্ষ্য দেওয়ার কথা ছিল। অভিযোগ, তার আগেই এ দিন ওই ব্যবসায়ী বাড়ি না থাকার সুযোগে কয়েক জন আত্মীয়কে এনে রিঙ্কু তাঁকে গণধর্ষণ করে পুড়িয়ে মারার চেষ্টা করে। শেষমেশ পালায়। ফের থানায় অভিযোগ হয়।

হাওড়ার পুলিশ কমিশনার দেবেন্দ্রপ্রকাশ সিংহ বলেন, ‘‘অভিযুক্তকে কেন আগের বার ধরা হয়নি, তা দেখা হচ্ছে। এ বারে গণধর্ষণের মামলা রুজু করে তল্লাশি চলছে।’’

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts