স্ত্রীর মরদেহ হাসপাতালে রেখে পালিয়েছেন স্বামী

Dath-Body
Share Button

বিষক্রিয়ায় আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়া স্ত্রীর মরদেহ হাসপাতালে রেখে পালিয়ে গেছেন স্বামী। সোমবার বিকেলে বগুড়ার ধুনট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এ ঘটনা ঘটে।

অভিযোগ উঠেছে যৌতুকের দাবিতে স্বামী বাবু মিয়া (২৫) তার স্ত্রী লিপি খাতুনকে (২০) বিষ প্রয়োগে হত্যা করেছেন।

লিপির বাড়ি সিরাজগঞ্জ জেলার কাজিপুর উপজেলার হরিনাথপুর গ্রামে। তার বাবার নাম আবদুর রহমান। অন্যদিকে স্বামী বাবু মিয়ার বাড়ি চরকাদহ গ্রামে।

নিহত লিপির বড় ভাই সিরাজুল ইসলাম জানান, ২৫ হাজার টাকা যৌতুকের বিনিময়ে দুই বছর আগে লিপি ও বাবুর বিয়ে সম্পন্ন হয়। বিয়ের পর আরও ২০ হাজার টাকা যৌতুকের দাবি জানায় ভগ্নিপতি বাবু। এনিয়ে তার ভগ্নিপতি প্রায়ই বোনের উপর নির্যাতন করতেন।

সোমবার সকালেও বাবু মারপিটের এক পর্যায়ে লিপির মুখে বিষ ঢেলে দেয়। বেলা সাড়ে ১২টার দিকে তাকে পার্শ্ববর্তী বগুড়ার ধুনট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। সেখানে বিকাল ৩টার দিকে লিপির মৃত্যু হয়। খবর শুনে বাবু মিয়া পালিয়ে যান।

এদিকে হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক ইকবাল হোসেন জানান, মুমূর্ষু লিপিকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়ার পর বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়। কিন্তু স্বজনরা সেখানে নিতে অপারগতা প্রকাশ করেন। এ অবস্থায় বিকালে তার মৃত্যু হয়।

লিপির শরীরে মারপিটের চিহ্ন ও কীটনাশকের আলামত ছিল বলে জানান তিনি।

ধুনট থানার ওসি মিজানুর রহমান জানান, দাম্পত্য কলহে ওই গৃহবধূ বিষপানে মারা গেছেন বলে শুনেছি। তবে বাপের বাড়ির লোকজন এটাকে হত্যা হিসেবে দাবি করেছেন। এটি হত্যা না আত্মহত্যা সে ব্যাপারে নিশ্চিত হতে লাশ শজিমেক হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পাবার পর ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts