ঢামেকে টাকার অভাবে ভর্তি হতে পারছে না খুশি

জিন্নাতুন ফেরদৌস খুশি
Share Button

ঢাকা মেডিকেল কলেজে ভর্তির সুযোগ পেয়েও টাকার অভাবে ভর্তি হতে পারছে না ঠাকুরগাঁওয়ের রাণীশংকৈলের মেয়ে জিন্নাতুন ফেরদৌস খুশি।
৭ অক্টোবর অনুষ্ঠিত এমবিবিএস ভর্তি পরীক্ষায় ১৮২তম হয়ে ঢাকা মেডিকেল কলেজে পড়ার সুযোগ পেয়েছে ও।

জিন্নাতুন ফেরদৌস জানায়, অক্টোবর মাসের ২০ থেকে ৩১ তারিখের মধ্যে ভর্তি হতে হবে। ভর্তির জন্য প্রয়োজনীয় টাকা তার পরিবারের পক্ষে জোগাড় করা সম্ভব হচ্ছে না।

কয়েক মাস আগে বাবা মারা গেছেন জানিয়ে জিন্নাতুন বলে, “বাবার স্বপ্ন ছিল চিকিৎসক হই। কিন্তু চান্স পেয়েও আমার ভর্তি অনিশ্চিত হয়ে গেছে। বাবা বেঁচে থাকলে এটা হতো না।

উপজেলার নেকমরদ বাজারে দুইটি দোকান ঘরের ভাড়ায় চলে তাদের পরিবারের খরচ। দুইভাই-এক বোনের মধ্যে জিন্নাতুন দ্বিতীয়। বড় ভাই রবিউল ইসলাম দিনাজপুর হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভেটেনারি বিভাগে পড়ছে আর ছোট ভাই পঞ্চম শ্রেণিতে পড়ে।

তার মা আনোয়ারা বেগম বলেন, “খুব কষ্টে পরিবারের খরচ চালাতে হয়। মেয়েকে কীভাবে ভর্তি করাব, কীভাবে পড়ার খরচ চালাব জানি না।”

এ বিষয়ে নেকমরদ আলিমুদ্দিন সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক শাহ আলম বলেন, “জিন্নাতুন ষষ্ঠ থেকে দশম শ্রেণি পর্যন্ত এই বিদ্যালয়ে পড়েছে। ও মেধাবী।”

সমাজের বিত্তবানদের জিন্নাতুনের পাশে এগিয়ে আসতে আহ্বান জানান তিনি।

২নং নেকমরদ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এনামুল হক বলেন, “মেয়েটি মেডিকেলে চান্স পেয়েছে কিন্তু টাকার জন্য ভর্তি হতে পারছে না। আর্থিক ভাবে সহযোগিতা পেলে মেয়েটি চিকিৎসক হবে।”

২০১৪ সালে নেকমরদ আলিমুদ্দিন সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি পরীক্ষায় গোল্ডেন জিপিএ পাঁচ এবং ২০১৬ সালের এইচএসসি পরীক্ষায় ঠাকুরগাঁও সরকারি কলেজ থেকে জিপিএ পাঁচ পেয়েছে জিন্নাতুন।

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts