ওকালতি ছেড়ে মডেলিংয়ে এসে সেক্সি পিয়া ঝড় তুলেছেন ইনস্টাগ্রামে

ওকালতি ছেড়ে মডেলিংয়ে এসে সেক্সি পিয়া ঝড় তুলেছেন ইনস্টাগ্রামে

আর পাঁচটা মেয়ের মতোই চলছিল পিয়া মুহয়েনবেকের জীবন। লেখাপড়ায় বেশ ভাল ছিলেন। তাই বাবা-মায়ের বাধ্য মেয়ে বাবার কথা শুনে আইন নিয়ে কলেজে ভর্তি হন। কিন্তু বেশি দিন ওকালতিতে মন টেকেনি তাঁর।

সব কিছু ছেড়েছুড়ে এক্কেবারে ১৮০ ডিগ্রি ঘুরে মডেলিংকে পেশা হিসেবে বেছে নেন।

ব্যস! আর পিছনে ফিরে তাকাতে হয়নি এই অস্ট্রেলীয় মডেলকে। চড়চড় করে বেড়েই চলেছে সুন্দরীর জনপ্রিয়তা। ইনস্টাগ্রামে ইতিমধ্যেই ঝড় তুলেছেন তিনি।

 

দেখে নিন পিয়া মুহয়েনবেকের জীবনের গল্প

 

এই সেক্সি গার্ল এখন অস্ট্রেলিয়ায় বাস করলেও তাঁর জন্ম কিন্তু জার্মানিতে।

আইন নিয়ে পড়াশুনা করে ফার্স্ট ক্লাস পেয়ে স্নাতক হন এই বিদ্যাধরী সুন্দরী।

পিয়া নাকি প্রতিদিনই ইনস্টাগ্রামে ফলোয়ারদের সঙ্গে যোগাযোগ রাখেন।

ইতিমধ্যেই ইনস্টাগ্রামে ১২ লক্ষ ফলোয়ার আছেন পিয়ার।

নিয়মিত সকাল সাতটায় ঘুম থেকে ব্যায়াম করেন এই লাস্যময়ী।

একদিনও নাকি বাদ দেন না জিমে যেতে।

বিখ্যাত সুইমওয়্যার ব্র্যান্ডের অ্যাম্বাসাডর এই ফ্যাশানিস্তা।

পিয়া একটি সুইমওয়্যার ব্র্যান্ডের মার্কেটিং এডিটরের দায়িত্বভার সামলাচ্ছেন।

মাত্র এক বছর আগে ওকালতি ছেড়ে মডেলিংকে পেশা হিসেবে বেছে নিয়েছেন এই সু্ন্দরী।

প্রতিদিনই নিজের ব্র্যান্ডের অন্তর্বাস পরে ইনস্টাগ্রামে ছবি পোস্ট করেন এই অস্ট্রেলীয় মডেল।

নিজের জীবনকে ‘একটু পাগলাটে’ বলতেই পছন্দ করেন মুহয়েনবেক।

যে কোনও ধরনের ওয়াটার স্পোর্টসও পছন্দ এই তারকার।

কী করে শরীরকে ফিট রাখা যায়, তার টিপস্‌ও অনলাইনে রোজ দিয়ে থাকেন তিনি।

প্রতিদিন পিয়া তাঁর বয়ফ্রেন্ড কেনের সঙ্গেই যোগা করতে যান।

ডেভিড জোনসের মতো বিখ্যাত ফোটোগ্রাফারের সঙ্গেও কাজ করেছেন এই সেক্স বম্ব।

তাঁর মডেলিং কেরিয়ার যাতে আরও পোক্ত হয়, সেই জন্য পরিবারেরও খুব সাপোর্ট রয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

বন্ধুবান্ধবের সঙ্গে সময় কাটাতেও বেশ পছন্দ করেন পিয়া।

একটি স্পোর্টস ওয়্যার কোম্পানির মডেল হওয়ার ডাক পেয়েই তাঁর জীবন বদলে যায়।

পিয়া নাকি ছোট থেকেই বেশ সাহসী ছিলেন।

অনেকগুলি নতুন সুইম ওয়্যার কোম্পানির মডেল হওয়া নিয়ে কথাবার্তা চলছে তাঁর।

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts