নারীদের যৌন হেনস্থায় দায়ে এবার অভিযুক্ত মাইকেল ডগলাস

মাইকেল ডগলাস
Share Button

নারীদের উপরে যৌন হেনস্থার প্রশ্নে একজোট হয়েছে  গোটা হলিউড। বিতাড়িত হয়েছেন নামী প্রযোজক হার্ভি ওয়াইনস্টেইন। সম্প্রতি গোল্ডেন গ্লোব পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানেও ছায়া ফেলেছে সেই প্রতিবাদ। যার সমর্থক হিসেবে দেখা গিয়েছে হলিউডের বাঘা বাঘা শিল্পীকে।

ফের এক বার হলিউডের এক বিখ্যাত অভিনেতার বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থার অভিযোগ উঠল। এ বার অভিযোগের তির মাইকেল ডগলাসের দিকে। হ্যাঁ, ঠিকই ধরেছেন। ‘ফ্যাটাল অ্যাট্রাকশন’, ‘বেসিক ইন্সটিঙ্কট’, ‘ওয়াল স্ট্রিট’-এর মতো ছবির নায়ক, মাইকেল ডগলাস।

অভিযোগকারিণী হলেন লেখিকা সুজান ব্রডি। আটের দশকে মাইকেল ডগলাসের ছবির স্ক্রিপ্টরাইটার হিসেবে কাজ করেছেন তিনি। শুক্রবার এনবিসি নিউজের একটি অনুষ্ঠানে প্রকাশ্যে এসে এমন অভিযোগ করেছেন তিনি।

স্লেট ডট কমের রিপর্ট অনুয়ায়ী, ১৯৮৯ সালের একটি ঘটনার বিবরণ দিতে গিয়ে সুজান বলেন, ‘‘এক বার ওর অ্যাপার্টমেন্টে স্ক্রিপ্ট নিয়ে বৈঠক করতে গিয়েছিলাম। হঠাত্ দেখলাম, মাটিতে শুয়ে নিজের প্যান্টের বেল্ট খুলছে ও। তার পর প্যান্টের ভিতর হাত ঢুকিয়ে ফেলল। আমি বুঝতে পারছিলাম ও কী করছে। আমি খুব ভয় পেয়ে গিয়েছিলাম।”

অভিযোগকারিণীর দাবি, ‘‘ও (মাইকেল ডগলাস) নিজেকে গোটা দুনিয়ার রাজা মনে করত, এবং ভাবত কোনও অনুতাপ ছাড়াই আমাকে যখন খুশি হেনস্থা করতে পারবে।’’

সুজানের অভিযোগ, তাঁর পোশাক নিয়েও মন্তব্য করতেন ডগলাস। তাঁর দাবি, ‘‘আমি লম্বা এবং ঢোলা পোশাক পরতাম। ও (মাইকেল ডগলাস) এক জন প্রযোজককে বলেছিল, সুজান প্রেগন্যান্ট মহিলাদের মতো জামাকাপড় পরে কেন?’’

এনবিসি নিউজে সুজানের এমন মন্তব্যকে অবশ্য একেবারেই ভিত্তিহীন বলে উড়িয়ে দিয়েছেন ৭৩ বছর বয়সী অভিযুক্ত অভিনেতা। হলিউড রিপোর্টারকে তিনি বলেছেন, ‘‘এটি দুর্ভাগ্যজনক এবং একেবারেই মিথ্যে।’’ তাঁর পাশে দাঁড়িয়েছেন স্ত্রী অভিনেত্রী ক্যাথরিন জিটা জোন্সও।

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts