যৌন লালসার শিকার নায়িকা

Share Button

যৌন হেনস্তার কথা ফাঁস করলেন নায়িকা। বললেন সেই মুহুর্তের নানা কথা। প্রায়শই ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে নারীদের যৌন হেনস্থার খবর সামনে আসে। এক সমীক্ষায় দাবিও করা হয়েছিল, ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে যত সংখ্যক যৌন নিগ্রহের ঘটনা ঘটে, তার মাত্র ১ শতাংশ ঘটনা প্রকাশ্যে আসে।

বাকিটা আড়ালেই থেকে যায়। লজ্জায় অধিকাংশ নারীই মুখ খোলেন না। ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির এই যৌন হেনস্থাকে নিশানা করলেন এক দক্ষিণী অভিনেত্রী। ভারালক্ষ্মী শরথকুমার নামে এই তামিল অভিনেত্রী তাঁর টুইটার অ্যাকাউন্টে জানিয়েছেন, কী ভাবে একটি টেলিভিশন চ্যানেলের প্রোগ্রামিং হেড তাঁকে কুপ্রস্তাব দিয়েছিলেন।

টুইটারে অবশ্য সেই টেলিভিশন চ্যানেলের নাম নেননি ভারালক্ষ্মী। তিনি টুইটারে করা পোস্টে জানিয়েছেন, টেলিভিশন চ্যানেলের সঙ্গে তাঁর অনুষ্ঠান করার কথা ছিল। সেই নিয়ে আলোচনা করতে তিনি চ্যানেলের দফতরে গিয়েছিলেন। সেখানেই ওই প্রোগ্রামিং হেড তাঁকে অফিসের বাইরে দেখা করতে বলেন।
ভারালক্ষ্মীর দাবি, তিনি জিজ্ঞেসও করেছিলেন সেখানে, অনুষ্ঠানের বিষয়ে কোনও কথা হবে নাকি? জবাবে টেলিভিশন কর্তাব্যাক্তি নাকি কু-ইঙ্গিত করেন এবং জানান, অন্য বিষয়ে তাঁর সঙ্গে সম্পর্ক তৈরি করতে চান। এর পরই নাকি ক্ষিপ্ত ভারালক্ষ্মী সেখান থেকে আসেন। টুইটারে এই যৌন হেনস্থার কথা ফাঁস করার সঙ্গে সঙ্গে ক্ষিপ্ত ভারালক্ষ্মী ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে মেয়েদের সঙ্গে যৌন হেনস্থাকে নিশানা করেন।
তিনি টুইটারে করা পোস্টে লিখেছেন, ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে কাজ করা পুরুষদের অধিকাংশই বলেন, এই জায়গাটা এমনই। সব জেনেই তো এখানে কাজ করতে নারীরা আসেন। তা হলে এই নিয়ে এত অনুশোচনা কেন? ভারালক্ষ্মী নিজের টুইটে এই প্রসঙ্গ উত্থাপন করার সঙ্গে সঙ্গে জবাবও দিয়েছেন।
তিনি লিখেছেন, যে সব পুরুষ এই ধরনের কথা বলেন, তাঁদের আমি এটাই বলতে চাই যে, ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে মাংসের টুকরো হতে আসিনি, বা এখানে যে ভাবে মেয়েদেরকে দেখা হয় সে ভাবে বিবেচিত হতে আসিনি। আমি অভিনয় ভালবাসি।
এটা আমার ব্যক্তিগত পছন্দ। নিজের কাজকে নিখুঁত করতে খাটুনি থেকেও পিছপা হই না। সুতরাং, যে সব পুরুষরা ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে মেয়েদের এতটা নিচু চোখে দেখে, তাঁদের আমি বলব হয় সম্মান করুন, না হলে কেটে পড়ুন।
 

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts