শুভ জন্মদিন শাকিব খান

Shakib-Khan

অক্লান্ত পরিশ্রম আর বক্স অফিস সাফল্যের দরুন গত ১০ বছর ধরে যিনি ঢালিউড সাম্রাজ্যের সিংহাসনে বসে আছেন তিনি শাকিব খান, আজ তার জন্মদিন। ১৯৮৩ সালের ২৮ মার্চে তিনি ঢাকার নারায়ণগঞ্জ জন্মগ্রহণ করেন। দেশ সেরা এ নায়কের জন্মদিনে বিডিলেটেস্ট-এর পক্ষ থেকে রইলো শুভেচ্ছা।

তবে এবারের জন্মদিনে শাকিব অবস্থান করছেন কলকাতায়। কারণ সেখানে যৌথ প্রযোজনার ছবি `শিকারি`র শুটিং নিয়েই ব্যস্ত আছেন তিনি। সেখানে ঘরোয়া পরিসরে এবারের জন্মদিন পালন করবেন শাকিব এমনটাই জানিয়েছেন তার ব্যক্তিগত সহকারি। একইসঙ্গে শুটিংয়েও সময় দেবেন এই নায়ক। ছবিতে শাকিব ভক্তরা প্রিয় নায়ককে দেখবেন ‘মারমার-কাটকাট’ চরিত্রের অ্যাকশান হিরো হিসেবেই।

চিত্রনায়ক শাকিবের ক্যারিয়ার ঘেঁটে দেখা যায়, দেড় দশকেরও বেশি সময় ধরে অভিনয় করে চললেও কিং খান হিসেবে শাকিবের উত্থানটা ২০১০ সালের দিকে। তারপর থেকে ঢাকাই ছবির শীর্ষ নায়ক তিনি। বলা হয়ে থাকে তিনিই ইন্ডাস্ট্রি! তাকে ঘিরেই এখানে টাকা লগ্নি হয়; ব্যবসার বীজ বোনেন প্রযোজক-হল মালিকরা। অনেক নতুন মুখ আসে আবার হারিয়েও যাচ্ছে। কিন্তু শাকিব বহাল তবিয়তে রাজার আসনে বসে আছেন বাংলা ছবির নায়কদের রাজত্বে।

এই যে চলচ্চিত্রের মন্দার বাজার তবুও তিনি আশা জাগাতে পারেন। এটাই শাকিবের সবচেয়ে বড় কৃতিত্ব। হয়তো অনেক সমালোচনা আছে- অভিনয়ের, গল্পের, চরিত্র বাছাইয়ের, তবু তিনি হাল ধরে আছেন ইন্ডাস্ট্রির। সমসাময়িক প্রায় সব প্রবীন-নবীন নির্মাতার সাথেই কাজ করেছেন তিনি। নায়ক হয়েছেন মৌসুমী-শাবনূর থেকে শুরু করে আজকের নবাগতা কয়েকজন নায়িকার সঙ্গেও। দুইবারের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার জয়ী শাকিবের আরো এক পরিচয় হলো তিনি চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সভাপতির মতো গুরু দায়িত্ব পালন করছেন।

শাকিব খানের প্রকৃত নাম মাসুদ রানা। তার বাবা ছিলেন একজন সরকারী চাকুরীজীবি। মা গৃহিণী। তারা এক ভাই ও এক বোন। শাকিব খানের ইচ্ছে ছিল ডাক্তার বা ইঞ্জিনিয়ার হবার। মনের অজান্তেই অভিনয়ের প্রতি ঝোঁক চলে আসে তার। এরপর দর্শকের ভালবাসা, বিনোদনের প্রতি নিজের ভালোলাগা, সবকিছু মিলিয়েই এখন তিনি বেশ আনন্দের সঙ্গে অভিনয় চালিয়ে যাচ্ছেন।

আবুল খায়ের বুলবুলের পরিচালনায় শাকিবের প্রথম ছবি সবাইতো সুখী হতে চায়। ছবিটির শুটিং চলাকালীনই শাকিব খানের সুনাম ছড়িয়ে পড়ে ঢালিউডের পরিচালক-প্রযোজকদের মাঝে। এটা ১৯৯৯ সালের কথা। সিনেমা হলে শাকিব খানের মুক্তিপ্রাপ্ত প্রথম ছবি সোহানুর রহমান সোহান পরিচালিত অনন্ত ভালোবাসা। ১৯৯৯ সালের ২৮ মে অন্তত ভালোবাসা ছবিটি মুক্তি পায়। এ ছবিতে তার বিপরীতে অভিনয় করেছিলেন চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় অভিনয় শিল্পী মৌসুমীর ছোট বোন ইরিন। কিন্তু এ ছবিটি শাকিবকে নায়ক হিসেবে খ্যাতি এনে দিতে না পারলেও পরবর্তীতে বিভিন্ন ব্যবসা সফল সিনেমার কারণে তিনি দ্রুত সবচেয়ে সফল এবং জনপ্রিয় নায়ক হয়ে উঠেন।

এদিকে, শাকিবের হাতে রয়েছে প্রায় অর্ধ ডজন ছবি। এরমধ্যে আগামী পহেলা বৈশাখে মুক্তি পাবে শাকিব অভিনীত `পূর্ণদৈঘ্য প্রেম কাহিনী-২`। ছবিতে তার বিপরীতে অভিনয় করেছেন জয়া আহসান। এছাড়া সম্রাট, সত্তা, পাংকু জামাই, মা, রাজনীতি, মেন্টাল, শুটারসহ আরো কয়েকটি ছবিতে কাজ করছেন ঢাকাই ছবির নাম্বার ওয়ান এই নায়ক।

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts

Leave a Comment