সায়ন্তিকার হট ফিগারের পিছনের রহস্যটি কী জানেন?

sayontika
Share Button

সায়ন্তিকা বন্দোপাধ্যায়ের অসাধারণ ফিগার এবং ফিটনেসের পিছনের রহস্যটি কী জানতে চান? সায়ন্তিকা এমনিতেই ফিটনেস ফ্রিক। এই মিষ্টি নায়িকার প্রতিদিনের ওয়র্কআউট তালিকা জানলে চমকে যাবেন। কিন্তু শুধু হাড়ভাঙা ওয়র্কআউট নয়, ওঁর এই ফিটনেসের পিছনে একজন মানুষের বিরাট অবদান রয়েছে।

তিনি হলেন সায়ন্তিকার বাবা গুরুপ্রসাদ বন্দোপাধ্যায়। এই মুহূর্তে, কলকাতার সেলিব্রিটি ফিটনেস ‘গুরু’ তিনি এবং সল্টলেকের ‘গুরুস ড্রিম জিম’-এর প্রতিষ্ঠাতা। এছাড়াও আরও বেশ কয়েকটি হাই প্রোফাইল ফিটনেস ক্লাবের তিনি স্পেশাল ট্রেনার। কিন্তু এটাও ওঁর সম্পূর্ণ পরিচয় নয়।

শ্রী বন্দোপাধ্যায় কলকাতা পুলিশ ট্রেনিং ইনস্টিটিউটের প্রশিক্ষক। এই প্রাক্তন পুলিশ অফিসার অত্যন্ত জনপ্রিয় তাঁর অভিনব শিক্ষণ পদ্ধতির জন্য। তাই পুলিশ ট্রেনিং স্কুল হোক বা জিম, তাঁর ফ্যান ফলোয়িং কিন্তু সায়ন্তিকার চেয়ে কম কিছু নয়।

সায়ন্তিকাও একাধিক সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন যে তাঁর কেরিয়ারে তাঁর বাবার একটি বিরাট ভূমিকা রয়েছে। বাবা যে তাঁর ফিটনেস আইকন সেটাও বহুবার সোশ্যাল মিডিয়াতেও পোস্ট করেছেন তিনি। বয়স পঞ্চাশের কোঠা ছাড়িয়ে গেলেও শ্রী বন্দোপাধ্যায়কে দেখে ‘হাঙ্ক’ না বলে কোনও উপায় আছে?

সবশেষে শ্রী বন্দোপাধ্যায় সম্পর্কে আর একটি তথ্য শেয়ার করা যাক। পুলিশ অফিসার হিসেবে চাকরি করার সময়ে তিনি ছিলেন কলকাতায় আগত বিশেষ অতিথিদের সিকিউরিটি এসকর্ট। পোপ দ্বিতীয় জন পল, ফ্রান্সের প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট মিতেরঁ, হিলারি ক্লিন্টন এবং নেলসন ম্যান্ডেলার মতো ব্যক্তিত্বদের কলকাতা সফরে তিনি ছিলেন রাজ্যপালের বিশেষ কনভয় টিমের সদস্য। বিশেষ করে নেলসন ম্যান্ডেলার কলকাতা সফরে তাঁর দায়িত্ব ছিল সবচেয়ে বেশি। সেই অভিজ্ঞতার কথা তিনি বহুবার সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন।

তিনি নিজেও পর্দায় এসেছেন একসময়ে। মুনমুন সেনের বিপরীতে ‘স্নো হোয়াইট’ অবলম্বনে নির্মিত একটি টিভি সিরিয়ালে তিনি অভিনয় করেছিলেন।

এমন একজন বাবার মেয়ে হিসেবে অবশ্যই গর্বিত বোধ করেন সায়ন্তিকা।

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts