হৃতিকের ছবি দেখেই প্রেমে পড়েছিলেন কিশোরী কঙ্গনা

কঙ্গনার 'অশ্লীল' ভিডিও ছড়াচ্ছেন ঋত্বিক!
Share Button

হৃতিক রোশনকে সশরীরে দেখার আগেই নাকি তাঁর প্রেমে মশগুল হয়েছিলেন তখনও কিশোরী কঙ্গনা রানাউত! কঙ্গনার ইমেল অ্যাড্রেস থেকে ‘ভুয়ো’ হৃতিককে পাঠানো একটি মেলে তেমনই ‘স্বীকারোক্তি’ রয়েছে নায়িকার। তাতে লেখা, ‘মানালিতে একটি হিন্দি দৈনিকে তোমার ছবি দেখে পাগল হয়ে গিয়েছিলাম। মনে হয়েছিল, আরে! এই লোকটা তো আমারই’! মেলের বয়ান অনুযায়ী, সেই ঘটনাটি পরে হৃতিককে জানিয়েওছিলেন কঙ্গনা। যদিও সেই আকর্ষণ প্রেম কি না, সে বিষয়ে তখনই দ্বিধামুক্ত হতে পারেননি বলিউডের অধুনা ‘কুইন’।

তবে এটুকু বুঝেছেন যে, সেই অনুভূতি নিছকই কোনও কিশোরীর ‘ক্রাশ’ ছিল না। ওই ইমেলে হৃতিকের প্রতি তাঁর আকর্ষণের ব্যাখ্যা দিতে গিয়ে কঙ্গনা লিখেছেন, ‘অনুভূতিটা তখনও স্পষ্ট বুঝিনি। তখন সিনেমা দেখতাম না, চিত্রতারকাদের সম্পর্কে কোনও মোহও ছিল না। তবে তোমায় দেখলেই শরীর-মনে অদ্ভুত এক শিরশিরানি খেলে যেত। মনে হতো, তোমার দৃষ্টি আমার শরীর থেকে আত্মাকে নিংড়ে বার করে নিচ্ছে। অস্বস্তি হতো, হতাশায় ভরে উঠতাম’।

পরবর্তীকালে হৃতিকের দু’টি ছবির নায়িকা হলেও ইমেল বলছে, কৈশোরের সেই স্বপনচারী’র থেকে তখনও সাড়া পাননি কঙ্গনা। হৃতিক সম্পর্কে তাঁর তখনকার অনুভূতিও ছিল আলোআঁধারিতে ভরা। ইমেলে কঙ্গনা লিখেছেন, ‘আমাদের পরিচয়ের পরেও তোমার আচরণ ছিল অদ্ভুত। আমায় কিছু বলোনি, আমার সঙ্গে দেখা করার চেষ্টাও করোনি। ভাবতাম যাকে এত চাই, আমার ব্যাপারে সে কেন এত উদাসীন’? ওই ইমেলেরই শেষ পর্বে বোঝা-না বোঝার দ্বন্দ্ব কাটিয়ে তাঁর প্রতি হৃতিকের প্রেমও দিনের আলোর মতো স্পষ্ট হয়েছে কঙ্গনার কাছে! হৃতিক এমন কোনও সম্পর্কের কথা আগাগোড়া অস্বীকার করলেও তাঁর উদ্দেশে কঙ্গনার ‘মেলদূত’ বলছে, ‘আজ আমার কোনও সন্দেহ নেই যে, তুমি শুধু আমাকেই ভালবাস।

আমি শুধুই তোমার, আর কারও নই। তবে তোমার এই বোধোদয়টা ভিন্নভাবে ঘটেছে।…তোমার দিকে তাকিয়ে ভাবতাম, ও যে আমায় কতটা ভালবাসে তা ও নিজেই বোঝে না! কতগুলি বছর যে সেই দুঃখে কেটেছে, তা ঈশ্বরই জানেন’!

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts