কুকুরের বিয়েতে পাঁচ হাজার লোকের ভূড়িভোজ!

কুকুরের বিয়েতে পাঁচ হাজার লোকের ভূড়িভোজ!

আদরের কন্যে শগুনিয়ার বিয়ে বলে কথা! মেয়ের বিয়েতে আয়োজনের কোনও কমতি রাখেননি উত্তর প্রদেশের কৌশম্বি জেলার পাওয়ারা গ্রামের জঙ্গ বাহাদুর।

নিমন্ত্রিতের সংখ্যা ৫০০০, অতিথিদের মনোরঞ্জনের জন্য ডিজে, পেট পুজোর জন্য ফুলকো লুচি, পোলাও, আলুরদম, পনির, মিষ্টি— সব মিলিয়ে এলাহি ব্যাপার স্যাপার।

শগুনকে বিয়ে করতে রীতিমতো ঢাকঢোল পিটিয়ে, বরযাত্রীদের সঙ্গে করে গাড়ি চেপে এল পাত্র শগুন। বসন্ত ত্রিপাঠীর যুবক ‘পুত্র’।

হিন্দু রীতিনীতি অক্ষরে অক্ষরে মেনে সারা হল বিয়েটাও। বিয়ের পরে বাবাকে কাঁদিয়ে বরের বাড়ি রওনা দিল শগুন। মেয়েকে বিদায় দেওয়ার সময় বসন্ত ত্রিপাঠীর হাত ধরে জঙ্গ বাহাদুর বললেন, ‘‘মেয়েটা আমার বড্ড আদরের। ওকে একটু দেখবেন।’’ উত্তরে বসন্ত ত্রিপাঠীর আশ্বাস ‘‘চিন্তা করবেন না।

বৌমা নয়, মেয়েকে নিয়ে যাচ্ছি।’’

সব কিছুই ভীষণ স্বাভাবিক শোনাচ্ছে বুঝি? হয়তো স্বাভাবিকও। শুধু শগুন বা শগুনিয়া, দু’জনের কেউই মানুষ নয়। সারমেয়।

পোষ্য কুকুরের বিগ ফ্যাট ওয়েডিং দিয়ে জঙ্গ বাহাদুর চমকেও দিয়েছেন সবাইকে। তিনি অবশ্য বেজায় খুশি।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে বলেছেন, কুকুরতো কী হয়েছে, শগুনিয়া আসলে তাঁর পালিত মেয়েই। আপাতত, তিনি শুধু চান শ্বশুরবাড়িতে যেন বেজায় সুখে থাকে তার আদরের মেয়ে।

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

Related posts

Leave a Comment

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.