বিয়ের জন্য ৬ লাখ টাকায় মেয়ে ক্রয়!

কিশোরীর দাম ৬ লাখ টাকা!

প্রথমে ৬.৩০ লক্ষ টাকা দিয়ে এক কিশোরীকে কিনে তাকে বিয়ে করার অভিযোগে গ্রেফতার হল ৩৫ বছরের লাচ্চারাম কৃপারাম চৌধুরী৷ শনিবার তার নাবালিকা স্ত্রী মহারাষ্ট্রের নালাসোপারা থানায় গিয়ে স্বামীর নামে অভিযোগ দায়ের করলে পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে৷ পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে লাচ্চারাম জানায় গতবছর রাজস্থানের পালি জেলা থেকে ১৩ বছরের কিশোরীকে কিনেছিল সে৷ আর তারপরেই তাকে বিয়ে করে৷ কিশোরীর পরিবারের অনুমতিতেই এই বিয়ে হয়েছিল বলে পুলিশকে জানিয়েছে সে৷

কিশোরী পুলিশকে জানিয়েছে, তার উপর রোজ শারীরিক এবং মানসিক নির্যাতন চালাত লাচ্চারাম৷ শুধু তাই নয়, তাকে বিক্রি করার পিছনে তার পরিবারের লোকের মদত রয়েছে বলেও জানা গিয়েছে৷

জেরায় লাচ্চারাম আরও জানায়, তার কেনার আগে মেয়েটিকে আরও দু’বার বিক্রি করেছিল তার সৎ মা৷ প্রথমে ৫০,০০০ টাকা ও পরে ৫.৮০ লক্ষ টাকায় কিশোরীকে বিক্রি করেছিল তার সৎ মা৷ পরবর্তী সময়ে লাচ্চারাম তার মেয়েকে বিয়ে করার প্রস্তাব দিলে জাল সার্টিফিকেট বের করে মেয়ের মা৷ সেখানে কিশোরীর বয়স ২০ দেখিয়ে লাচ্চারামের সঙ্গে জোর করে বিয়ে দিয়ে দেয় সে৷

কিশোরীর পরিবারের খোঁজে পুলিশ তল্লাশি শুরু করেছে৷ লাচ্চারামের বিরুদ্ধে ৩৭৬ (ধর্ষণ), ৩৬৬এ(বলপূর্বক কাজ করতে বাধ্য করা), ৩৪২(জোর করে আটকে রাখা), ৩৭২(নাবালিকাকে পতিতাবৃত্তি করানো),৩৭৩ (নাবালিকাকে পতিতা হিসাবে কেনা) ৩২৩(অত্যাচার) ৩৪ এবং সেকশন ৪, ৮ ও ১২ ধারায় মামলা রুজু করা হয়েছে৷

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts