মানিব্যাগ উদ্ধারে হেলিকপ্টার!

মানিব্যাগ উদ্ধারে হেলিকপ্টার!
Share Button

হারানো মানিব্যাগ উদ্ধার অভিযানে হেলিকপ্টার! হ্যাঁ, এমনটাই করা হয়েছে। আর এতে ব্যয় হয়েছে প্রায় চার হাজার মার্কিন ডলার।

যুক্তরাষ্ট্রের আলবামা রাজ্যের গভর্নর রবার্ট বেন্টলি তাঁর হারানো মানিব্যাগ উদ্ধারে পুলিশের হেলিকপ্টার ব্যবহারের নির্দেশ দেন বলে অভিযোগ উঠেছে।

২০১৪ সালের শেষের দিকে রবার্ট বেন্টলি আলবামার টুসকালুসা শহরে তাঁর মানিব্যাগটি হারিয়ে ফেলেন। তিনি সেই মানিব্যাগ উদ্ধার করতে নিরাপত্তাকর্মীদের নির্দেশ দেন।

মানিব্যাগ উদ্ধারে পুলিশের হেলিকপ্টার ব্যবহার করা হয়। হেলিকপ্টারের ফ্লাইট তালিকা থেকে এই তথ্য জানা গেছে।

তবে এসব অভিযোগের ব্যাপারে বেন্টলি বলছেন, তিনি কখনো কোনো হেলিকপ্টার পাঠানোর নির্দেশ দেননি। এএল ডট কম নামের স্থানীয় একটি

অনলাইন গণমাধ্যমকে তিনি বলেন, ‘আমি নিরাপত্তারক্ষীদের অনুরোধ করেছিলাম আমার মানিব্যাগটি উদ্ধার করতে। তারা সেটি উদ্ধার করে আমার কাছে পাঠিয়েছে।

আমি জানতাম না তারা কিভাবে সেটি উদ্ধার করে পাঠিয়েছে।’ গভর্নর বলেন, ‘নিরাপত্তার কারণেও মানিব্যাগের প্রয়োজন হতে পারে। আমি একজন গভর্নর। খাবার কিনতে হলেও তো মানিব্যাগ থেকে অর্থ বের করতে হবে।’

তিনি দাবি করেন, মানিব্যাগ উদ্ধারে হেলিকপ্টার ব্যবহারের নির্দেশ দেননি তিনি।

এএল ডট কম নামের ওই গণমাধ্যমে বলা হয়েছে, মানিব্যাগ উদ্ধারে হেলিকপ্টার ব্যবহার করায় আলবামার করদাতাদের প্রায় চার হাজার মার্কিন ডলার অতিরিক্ত খরচ করতে হয়েছে।

গভর্নর মানিব্যাগ উদ্ধারে হেলিকপ্টার ব্যবহারের নির্দেশ দিয়েছিলেন কি না, তা নিয়ে অবশ্য দুই ধরনের তথ্য রয়েছে। একটি সূত্র বলছে, গভর্নরের তৎকালীন দেহরক্ষী মানিব্যাগ উদ্ধারে হেলিকপ্টার ব্যবহার করতে বলেছিলেন। অন্য একটি সূত্রের দাবি, গভর্নর কখনোই হেলিকপ্টার ব্যবহারের নির্দেশ দেননি।

সম্প্রতি ঘনিষ্ঠ এক সহযোগীর সঙ্গে যৌন কেলেঙ্কারিতে জড়িয়ে পড়ায় গভর্নর বেন্টলির পদত্যাগের দাবি উঠেছে। এ ঘটনায় তাঁকে অভিশংসনের জন্য আলবামার আইনপ্রণেতারা প্রাথমিক পদক্ষেপও নিয়েছেন।

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts