রোগির নাক দিয়ে বেড়িয়ে এলে জ্যান্ত আরশোলা, অবাক চিকিৎসকরা!

নাক দিয়ে বেড়িয়ে এলে জ্যান্ত আরশোলা

মাথার ভিতরে আরশোলা। তাও আবার জ্যান্ত। চেন্নাইয়ের হাসপাতালে এক রোগীর মাথা থেকে জ্যান্ত আরশোলা বের হওয়া নিয়ে অবাক চিকিৎসকরা। এখন প্রশ্ন, কী ভাবে মাথার ভিতরে ঢুকে পড়েছিল ওই আরশোলাটি? উত্তর নেই চিকিৎসকদের কাছেও।

বছর বিয়াল্লিশের সেলভির বাড়ি চেন্নাইয়ের ইনজামবাকামে। বেশ কিছু দিন ধরেই তিনি মাথায় অসহ্য যন্ত্রণায় কষ্ট পাচ্ছিলেন। মনে হচ্ছিল মাথার ভিতরে কী যেন একটা হেঁটে চলে বেড়াচ্ছে। মাঝে মাঝে সেটা যেন নাকের কাছে চলে আসছে। কিন্তু সেটা যে একটা আস্ত আরশোনা সেটা দুঃস্বপ্নেও ভাবতে পারেননি সেলভি। ভাবতে পারেননি চিকিৎসকরাও। পরীক্ষা করে দেখা যায় একটি পোকা রয়েছে মাথায়। সিদ্ধান্ত হয় অপারেশনের।

সেলভি প্রথমে ইনজামবাকামরে একটি ক্লিনিকে চিকিৎসা করাতে যান। সেখান চিকিৎসকরা বুঝতেই পারেননি কী হয়েছে। পরে তিনি যান চেন্নাইয়ের স্ট্যানলি মেডিক্যাল কলেজে। সেখানে নাসাল এন্ডোস্কপি করা হয়। তাতেই জানা যায়, মাথার মধ্যে একটি পোকা রয়েছে।

এর পরে হয় অপারেশন। নাক দিয়ে চিকিৎসকরা বের করে আনেন একটি জ্যান্ত আরশোলা। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, দু’টি চোখের মাঝখানে ছিল আরশোলাটি। সেটি শুধু জ্যান্তই নয়, মাথার ভিতরে হেঁটে চলে বেড়াচ্ছিল। প্রায় ৪৫ মিনিট ধরে চলে অপারেশন। তার পরে বের করে আনা হয় ‘অনুপ্রবেশকারী’ আরশোলাটিকে।

এখন চিকিৎসকদের কাছে দু’টি প্রশ্ন। কী ভাবে ওই মহিলার মাথায় ঢুকে পড়েছিল ওই আরশোলাটি? কী ভাবেই বা আরশোলাটি জীবিত রয়েছে? তবে একটা আশার কথা, ওই মহিলার মাথায় সে ভাবে কোনও সংক্রমণ ঘটেনি।

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts