শৌচাগারে কমোড ফুঁড়ে গোপনাঙ্গে কামড় অজগরের!

গোপনাঙ্গে অজগরের কামড়

ধরুন আপনি আরাম করে বসে আছেন আপনার বাড়ির সাধের শৌচাগারে। কমোডের মধ্যে থেকে বেরিয়ে এল ১১ ফুট লম্বা এক অজগর। শুধু এসে একবার উঁকি দিয়ে চলে যাওয়াই নয়, ওটি যদি কমোড থেকে বেরিয়ে আপনার গোপনাঙ্গে আঘাত করে! না না কোনো বেপাস কথা বলছি না। চরম বাস্তব ঘটনা। গোপনাঙ্গে অজগরের কামড়ে কাবু হয়ে এখন হাসপাতালে ভর্তি ৩৮ বছরের আত্থাপোর্নে বুনমাকচুয়ে।

ব্যাংককের ছাছেংগসাওয়ের এ বাসিন্দা প্রতিদিনের মতো সকালে বাথরুমে গিয়েছিলেন। কমোডে বসে সারছিলেন নিত্যদিনের কাজ। আচমকাই তার পুরুষাঙ্গে কামড় বসিয়ে দেয় কি জানি একটা। যন্ত্রণায় বিকৃত হওয়া মুখেই হাত বাড়িয়ে ধরে ফেলেন কামড় দেয়া প্রণিটিকে। সামনে টেনে আনতেই চোখ তার কপালে। তার হাতের মুঠোয় বিশাল এক অজগর। আতঙ্কে চিৎকার করে স্ত্রীকেও ডাকেন তিনি। দরজার ছিটকানি ভেঙে বাথরুমে ঢুকে স্ত্রীরও ভিরমি খাওয়ার উপায়।

কমোড থেকে বাথরুম ফ্লোর, চারিদিকে তখন শুধুই রক্ত। এই পরিস্থিতিতে অজগরের মুখে আঙুল ঢুকিয়ে তার চোয়াল দুটো আলগা করেন আত্থাপোর্নে। সাপটির মুখে প্লাস্টিক জড়িয়ে দড়ি দিয়ে বাথরুমের দরজার সঙ্গে বেঁধেও ফেলেন।

স্ত্রী ততোক্ষণে অ্যাম্বুলেন্সে খবর দিয়েছেন। পরে আত্থাপোর্নেকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। আপাতত তিনি ভালো আছেন। তবে তার পুরুষাঙ্গটি ক্ষতবিক্ষত হয়ে যাওয়ায় তা বাদ দিতে হয়েছে।

এদিকে খবর পেয়ে আত্থাপোর্নের বাড়িতে আসে ফায়ার সার্ভিসের লোকজন। কমোড ভেঙে পাইথনটিকে উদ্ধার করা হয়। পাইথনটি অক্ষত আছে বলে জানিয়েছে ব্যাংককের বন অধিদপ্তর। সেটিকে পরে জঙ্গলে ছেড়ে দেয়া হয়।

উদ্ধারকারী টিমের বিশেষজ্ঞরা জানান, বাথরুমের পাইপে আসার আগে অন্য পাইপের মাধ্যমে ঘরে ঢুকেছিল ওই দানবাকৃতি সাপ। কমোডের পাইপ থেকে বেরোতে যাওয়ার সময় আত্থাপোর্নে সামনে থাকায় এ আক্রমণ।

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts