সৌন্দর্য বাড়াতে হাতের আঙুল কেটে ফেললেন এই মহিলা!

সৌন্দর্য বাড়াতে হাতের আঙুল কেটে ফেললেন এই মহিলা
Share Button

কথায় আছে ‘নিজের নাক কেটে অপরের যাত্রা ভঙ্গ করা।’ কিন্তু ইনি অপরের নয়, নিজের আঙুল কেটে নিজের রূপ বাড়াতে চেয়েছেন। রূপের জন্য কত জনে কত কিছুই না করে। তা বলে কেউ নিজের আঙুল কেটে ফেলতে পারে! এই খবর না পড়লে বিশ্বাস করা যাবে না।

ছবি টর্জ রেনল্ডসের ফেসবুক থেকে নেওয়া।

চিনে নিন এই রূপসীকে। টর্জ রেনল্ডস। ব্রিটেনের এসেক্স-এর ৩০ বছরের এই বাসিন্দা যে নিজের রূপ নিয়ে একটু বেশিই সচেতন, তা তো মুখ দেখেই বোঝা যায়। চোখ, মুখ, নাক, ঠোঁট, হাত শরীরের কোনও অংশেই ট্যাটু থেকে বাদ যায়নি। কিন্তু আচমকাই তাঁর এক অবাক সখ হয়। মনে হয়, বাঁ হাতের ছোট আঙুলটি যেন বেমানান। তাঁর রূপের সঙ্গে ঠিক মিলছে না। তাই একদিন…

তাই একদিন নিজেই নিজের ওই ছোট আঙুলটি কেটে ফেলার বড় সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেন। যা ভাবনা তাই কাজ। ধারালো ছুরির কোপে আঙুলটি কেটে ফেলেন। যন্ত্রণা হয়েছিল কি না জানাননি টর্জ রেনল্ডস। ফেসবুকে নিজের অ্যাকাউন্টে কাটা আঙল এবং আঙুল কাটা হাতটির ছবি তুলে পোস্ট করেন। তার সঙ্গে জানান, তিনি খুবই খুশি। একই সঙ্গে বলেন, এই আঙুল কাটার পিছনে আর কোনও কারণ নেই। দেখতে ভাল লাগবে ভেবেই তিনি এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। এর পরে তিনি নতুন ‘লুক’ পেয়েছেন বলেও দাবি করেছেন।

ছবি টর্জ রেনল্ডসের ফেসবুক থেকে নেওয়া।

ফেসবুকের এই পোস্ট দেখে কিন্তু খুব বেশি খাতির জোটেনি টর্জ রেনল্ডসের। বরং সমালোচনাই হয়েছে বেশি। অনেকেই এই কাজটিকে খ্যাপামো বলে জানিয়েছেন। তার জবাবও দিয়েছেন টর্জ রেনল্ডস। বলেছেন, ‘এটা আমি আমার জন্যই করেছি। কাউকে আঘাত করার জন্য করিনি। ছবিগুলির সংরক্ষণ এবং বন্ধুদের সঙ্গে এই অভিজ্ঞতা শেয়ার করার জন্যই ফেসবুকে পোস্ট করেছি।’

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts