কমিউনিজমের উৎপত্তি চর্মরোগ থেকে!

fundamental of comunism

কার্ল মার্কস নাকি তার বিখ্যাত বই ‘ডাস ক্যাপিটাল’ না লিখলে কমিউনিজমের জন্মই হত না। এ কথা অবশ্য নতুন করে বলার অপেক্ষা রাখে না। এই মহাগ্রন্থে মার্কস তার বিশ্বাসকে খোলাখুলি বর্ণনা করছেন। তার মতে, বিশ্বব্যাপী দরিদ্র মানুষকে দাবিয়ে রাখার জন্য এক গভীরতর ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয় ধনী ব্যক্তিরা।

মার্কসের ওই বক্তব্য রূপক, নাকি সত্যিকারের কোনো ষড়যন্ত্র হয়েছিল বলে মার্কস বিশ্বাস করতেন, এ নিয়ে আছে অনেক জল্পনা কল্পনা। তবে এমন একটা ষড়যন্ত্রতত্ত্বের ওপর মার্কস তার ‘বৈজ্ঞানিক সমাজতন্ত্র’ প্রতিষ্ঠা করতে অগ্রসর হবেন, ততটা উন্মাদ তাকে কেউ মনে করেননি।

তবে সম্প্রতি এক আশ্চর্য তথ্য পরিবেশন করেছেন ব্রিটিশ চিকিৎসাবিদ্যার অধ্যাপক স্যাম শাস্টার। ‘ব্রিটিশ জার্নাল অব ডার্মাটোলজি’তে প্রকাশিত একটি নিবন্ধে তিনি দাবি করেন, মার্কসের এই ভাবনা এক ধরনের মনোবিকারের ফসল। তিনি এক জটিল চর্মরোগে ভুগছিলেন সেই সময়ে। রোগের নাম ‘হাইড্রাডেনিটিস সুপ্পুরাটিভা’। এই অসুখে জ্বালা ও যন্ত্রণার সঙ্গে সঙ্গে একধরনের মনোবিকারও দেখা দেয়, যাতে মানুষ নিজেকে শোষিত ও নিপীড়িত বলে মনে করে।

মার্কস এই অসুখে ভুগছিলেন এবং তার অনুভূতিগুলিকে তিনি দরিদ্র, নিপীড়িত মানুষের সার্বিক সমস্যা বলে চিহ্নিত করেন। আর সেই ভাবনাই স্থান পায় ডাস ক্যাপিটালে- এমনটাই দাবি ব্রিটিশ ওই চিকিৎসকের।

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts