আজকের জোকস, ১৭ মার্চ ২০১৬

আজকের জোকস

সাংঘাতিকতা

স্নায়ুযুদ্ধকালের গল্প। রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী গেছেন আমেরিকা সফরে। এয়ারপোর্টে সাংবাদিকরা তাঁকে ঘিরে ধরল। একজন সাংবাদিক প্রশ্ন করল, ‘ আমরা জানি ক্রেমলিনে পতিতাপল্লী নেই। আপনি কি ওয়াশিংটনে এসে পতিতাপল্লীতে যাবেন?’
পররাষ্ট্রমন্ত্রী জবাব দিলেন না।
পরের সাংবাদিক প্রশ্ন করলেন, ‘আপনি কি ওয়াশিংটনে এসে পতিতাপল্লীতে যাবেন?’
পররাষ্ট্রমন্ত্রী এবারও এড়িয়ে গেলেন।
তৃতীয় সাংবাদিক এবার জানতে চাইলেন, ‘মিস্টার মিনিস্টার, আপনি ওয়াশিংটনে স্বাগতম। আপনি কি ওয়াশিংটনে এসে পতিতাপল্লীতে যাবেন?’
পররাষ্ট্রমন্ত্রী এমন বিদঘুটে প্রশ্ন শুনে ভাবলেন সাংবাদিকরা তাঁকে নিয়ে মজা করছে। তিনিও পাল্টা মজা করে জিজ্ঞেস করলেন, ‘ আপনাদের ওয়াশিংটনের পতিতাপল্লীটা কোথায়?’
—-ব্যাস, পরের দিন সব পত্রিকার শিরোনাম হলো, ‘ওয়াশিংটনে নেমেই রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী পতিতাপল্লীর রাস্তাঘাটের খোঁজ করলেন !’

দিস ইস কলড সাংঘাতিকতা ।।

 

 

আদব কায়দা

প্রিন্সিপালঃ “আপনার বাচ্চাকে আদব
কায়দা শিখাবেন ভালো করে”

অভিভাবকঃ “কেন স্যার? কি হয়েছে?”

প্রিন্সিপালঃ “এপ্লিকেশন ফর্মের সেক্স
কলামে সে লিখে এসেছে




“কখনো সুযোগ মিলে নাই….

 

ডেটিং

এক বিবাহিত পুরুষের সাথে তার
অফিসে’র ব্যক্তিগত সেক্রেটারী’র
সাথে গোপনে প্রেমের সম্পর্ক ছিল। খুব
দারুন কাটছিলো তাদের এই প্রেম ।
একদিন তারা ডেটিং এ গিয়ে এতই মধুর
সময় কাটাচ্ছিলেন যে খেয়ালই নেই
কখন বিকাল পার হয়ে সন্ধ্যা হয়ে গেছে ।
যখন খেয়াল হল তখন রাত ৮টা বাজে ।
বিবাহিত পুরুষটি তার প্রেমিকা’কে বললো,
“তুমি আমার জুতায় কিছু ঘাস,
ময়লা লাগিয়ে দাও” । তার প্রেমিকাও তাই
করলো ।লোকটি তারপর তার
প্রেমিকা’কে বাড়ি’তে পৌঁছে দিয়ে নিজের
বাসায় ফিরে আসলো । ঘরে ঢুকতেই তার
স্ত্রী বলে উঠলো, “এতক্ষন কোথায়
ছিলে” ? লোকটি বলল,
“আমি তোমাকে মিথ্যে বলব না,
আমি আমার ব্যক্তিগত সেক্রেটারী’র
সাথে ডেটিং এ গিয়েছিলাম” । তার
স্ত্রী তার জুতার দিকে তাকিয়ে চিৎকার
করে উঠলো, “মিথ্যুক, তুমি এতক্ষন গলফ
খেলতেছিলা…!! “

 

নেশা

এক ইদুর মদের গ্লাসে পড়ে গেছে।
.
.
.
.
সেখানদিয়ে একটা বিড়াল যাচ্ছিলো।ইদুর
বিড়ালকে বলছে >>>

ইদুর :-তুমি আমাকে এখানথেকে বাহির করো।তারপর যদি ইচ্ছে হয় তুমি আমাকে খেয়ে ফেল।

বিড়াললাথি মেরে মদের গ্লাস ভেংগে ফেলে। আর ইদুর বাহির হয়েতো দৌড় শুরু করে।তখন বিড়ালের রাগ উঠে যায়।
বিড়াল রেগে গিয়ে বলল>>>
বিড়াল :-শালা মিথ্যাবাদী, ধোকাবাজ,বেইমান।তুইইতো বলছিলি আমাকে এখানথেকে বাহিরকরো। তারপর ইচ্ছে হলে খেয়ে ফেল।
…ইদুরহাসি দিয়ে বলল, রাগ করিসনা দোস্ত তখনতো আমি নেশার মধ্যে ছিলাম।

আল হেলাল

মেয়েঃ আমি সানসিল্কের শ্যাম্পু ব্যবহার
করি । তুমি কিসের শ্যাম্পু ব্যবহার কর ?
ছেলেঃ আল হেলালের ।
মেয়েঃ আমি লাক্সের সাবান ব্যবহার করি ।
তুমি কিসের সাবান ব্যবহার কর ?
ছেলেঃ আল হেলালের ।
মেয়েঃ আমি olay ক্রিম ব্যবহার করি ।
তুমি কিসের ক্রিম ব্যবহার কর ?
ছেলেঃ আল হেলালের ।
মেয়েঃ আচ্ছা আল হেলাল কি কোন
ইন্টারন্যাশনাল ব্রান্ড ?
. . . . .
ছেলেঃ না । আল হেলাল…….আল হেলাল…… আমার রুমমেটের নাম…..

 

স্বামীর উপর মনোযোগ দেন্

ম্যাডাম :- বলো তো টিপু সুলতান কে ছিলেন্?
বল্টু :- জানিনা ম্যাডাম্।
ম্যাডাম :- তা জানবা কিভাবে? পড়াশুনায় মনোযোগ দেও।
বল্টু :- বলেন তো ম্যাডাম, মিলি কে?
ম্যাডাম :- জানি না তো, কেনো?
বল্টু :- তা জানবেন কিভাবে?
আপনার স্বামীর উপর মনোযোগ দেন্।

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

Related posts

Leave a Comment

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.