আজকের জোকস, ২৪ নভেম্বর ২০১৬

আজকের জোকস
Share Button

জোকস – ১:  প্রপোজ…

ছেলেঃ আমি আপনাকে প্রপোজ
করতে চাচ্ছি…!!
.
মেয়েঃ আপনি কি স্টুডেন্ট?
.
ছেলেঃ হুম আমি স্টুডেন্ট। প্রপোজ
করি?
.
মেয়েঃ লেখা পড়ার পাশাপাশি
আর কিছু করেন?
.
ছেলেঃ একটা জব করি। এখন প্রপোজ
করি?
.
মেয়েঃ আপনার বেতন কত?
.
ছেলেঃ ১৮০০০/ ২০০০০ এর মত।
প্রপোজ
করবো?
.
মেয়েঃ বাড়িতে কে কে আছে?
.
ছেলেঃ মা, আমি আর ছোট একটা
ভাই। এবার প্রপোজ করি?
.
মেয়েঃ আপনার বাবা নেই?
.
ছেলেঃ বাবা দেশের বাইরে
থাকে। প্রপোজ করি?
.
মেয়েঃ বাবা কোন দেশে থাকে?
.
ছেলেঃ ইউরোপ থাকে। মা
কলেজের টিচার। ছোট ভাই ইন্টারে
পড়ে। এবার তো প্রপোজ করি?
.
মেয়েঃ আমি বুঝতে পেরেছি তুমি
আমাকে কি বলতে চাচ্ছো ওকে
জান
এখন তুমি আমাকে প্রপোজ করতে
পারো
.
ছেলেঃ আমার কোন বোন নেই। আজ
তো প্রপোজ ডে তাই আপনি যদি
রাজি থাকেন তাহলে আমি
আপনাকে আমার বড় বোন বানাতে
চাই। প্লিজ আপু আমাকে ফিরিয়ে
দিয়েন না প্লিজ।


জোকস – ২:  উরাধুরা বন্ধু…

ছেলে রাত
করে বাড়ি ফিরেছে।
.
বাবা : কোথায় ছিলি রে
হারামজাদা?
. ছেলে: আমি আমার ফ্রেন্ড এর
বাসায়
ছিলাম
.
বাবা তৎক্ষনাত কয়েকজন
ছেলে বন্ধুদেরকে ফোন দিলেন..
.
৪ নং ফ্রেন্ড বললো : ”
জ্বী আঙ্কেল!
সে তো আমার সাথে ছিল”
. ৩ নং ফ্রেন্ড বললো: ” ও কিছুক্ষন
আগে চলে গিয়েছে”! .
.
২ নং ফ্রেন্ড বললো: ” চাচা, ও
আমার
সাথেই আছে (!!) এবং আমরা দুজন
পড়ছি (!!)
.
.
.
. .
.
.
সব শেষের জন সব লিমিট ক্রস
করলো,
এবং বললো.. .
.
.
.
-” হ্যাল্লো আব্বু, আমার আজ
রাতে আসতে দেরী হবে!!! .
ছেলে এবার মাইনকা চিপায়
.
আসলে এদেরকেই বন্ধু বলা যায়।
বন্ধু ছাড়া Life Impossible………


জোকস:   চতুর ছাত্র…

বল্টু পরিক্ষায়
ফেল করলো,
তো সে পাস করার
একটা বুদ্ধি করলো।
বল্টু
সারের
কাছে গিয়ে বললো,
বল্টুঃ স্যার
আপনি তো সব
জানেন,
তো আপনাকে একটা প্রশ্ন
জিজ্ঞাস করবো,
পারবেন? আর
যদি উত্তর
না দিতে পারেন
তাহলে আমাকে A
গ্রেড
দিতে হবে!!!
শিক্ষকঃ তুই
আমাকে চ্যালেঞ্জ
করছিস, ঠিক
আছে জিজ্ঞেস
কর। আমি রাজি…..
বল্টুঃ কোনটা বৈধ,
কিন্তু
যুক্তিসংগত নয়?
আবার
যুক্তিসংগত
কিন্তু বৈধ নয়?
এবং না যুক্তিসংগত
না বৈধ???
শিক্ষক পুরাই
বলদ!!! উত্তর
তো দূরের
কথা প্রশ্নটাই
প্রথম শুনছে।
সুতরাং সে রাগে দুঃখে
বল্টুকে A
গ্রেড দিলো!!!!
তারপর বল্টু
উত্তর দিলোঃ . . . .
স্যার আপনার বয়স
৫৩ আর
আপনার স্ত্রীর
২৩….এটা বৈধ
কিন্তু
যুক্তিসংগত
নয়….!!!!!আপনার
স্ত্রীর ২৫
বছর
বয়সী একটা বয়ফ্রেন্ড….
আছে এটা যুক্তিসংগত
কিন্তু বৈধ
নয়….!!!! আর এখন
আপনি আপনার
স্ত্রীর লাভার
(Lover) কে A গ্রেড
দিলেন……
এটা না বৈধ
না যুক্তিসংগত।
(স্যার অজ্ঞান).


জোকস৪: বল্টুর ইমেইল

বল্টুর E-mail
বল্টু ল্যাপটপ কিনেছে কেনার পর
ল্যাপটপের উপর
ত্যক্ত- বিরক্ত হয়ে বিল গেটস
সাহেবকে ইমেইল পাঠাল :
মি: গেটস, ঘটনা হইল, আমি যে
ল্যাপটপটা কিনলাম,
কেনার পর শুরুতেই যে সমস্যা
পেলাম।↓↓↓
↓↓↓
↓↓↓
↓↓↓
↓↓↓
↓↓↓
↓↓↓
এই Keyboard এর Letters গুলো
সঠিকভাবে সাজানো
নেই। A এর পরে S এরপরে আবার
D
এটা কিছু হইল??
ছোটবেলায় কি A,B,C, D ও শিখেন
নাই ঠিকমত???
যাই হোক,
Windows এ Start Button আছে
কিন্তু
Stop Button
নাই But why???
Ms Word আছে কিন্তু Mr. Word
কবে বেরুবে??? Ms.
দের
দেখলে মাথা ঠিক থাকেনা???
তাই না??? এসব ভন্ডামি
ছাড়েন, বুঝলেন???
এর উপরে আবার আরেক
গ্যাঞ্জাম, প্রায়ই একটা
ম্যাসেজ আসে
“press any key to continue ”
এই ” any key” টা গত দুইদিন
ধইরা
খুইজ্জাও পাইতাসি
না।
কি এই any key টা দিতে ভুলে
গেছেন বুঝি???
তাড়াতাড়ি আমার সব প্রশ্নের
উত্তর সহ আমার Email
এর Reply দিবেন নইলে কিন্তু,
কোতওয়ালি থানায়
আপনার নামে চিটিং-বাজির
মামলা করব।
‘বল্টু মিয়া – from বাংলাদেশ।”


জোকস – ৫:  শফিক সাহেবের পাগলামি…

শফিক সাহেব একজন
কোটিপতি। দামি গাড়ি তাঁর!!
:
:
একদিন ট্রাফিক সিগন্যালে
তাঁর গাড়ির পাশে এসে দাঁড়াল
লক্কড়ঝক্কড় মার্কা একটা
গাড়ি!!
:
:
পাশের গাড়ির ড্রাইভার
জানালা দিয়ে মাথা বের করে
বলল, ‘তোমার গাড়িতে কি
টেলিফোন আছে?’
:
শফিক সাহেব বললেন,
‘নিশ্চয়ই’।
:
ড্রাইভার- হু। আমার
গাড়িতেও আছে। আচ্ছা,
তোমার গাড়িতে কি ফ্যাক্স
মেশিন আছে।
:
শফিক- আছে।
:
ড্রাইভার- আমার গাড়িতেও
আছে। আচ্ছা, তোমার গাড়ির
পেছনে কি বিছানা আছে,
আয়েস করে ঘুমানোর মতো?
:
শফিক- না তো!!
:
ড্রাইভার- আমার গাড়িতে
আছে!!
:
:
:
—শফিক সাহেবের আঁতে ঘা
লাগল। একটা লক্কড়ঝক্কড়
গাড়িতে বিছানা আছে, আর
তাঁর গাড়িতে নেই!! এ হতে
পারে না। দোকানে গিয়ে তিনি
তাঁর গাড়ির পেছনে একটা
সুন্দর দামি বিছানা বসিয়ে
নিলেন!! এবার এক হাত দেখে
নেওয়া যাবে সেই পাগলা
ড্রাইভারকে!!!
:
:
একদিন শফিক দেখলেন,
রাস্তার পাশে দাঁড়িয়ে আছে
সেই গাড়িটা। গাড়ির ভেতরে
কিছু দেখা যাচ্ছে না। শফিক
জানালায় টোকা দিলেন। সাড়া
নেই। বেশ কয়েকবার টোকা
দেওয়ার পর জানালা খুললেন
সেই ড্রাইভার!!
:
লোকটার গায়ে একটা
তোয়ালে জড়ানো। বিরক্ত
ভঙ্গিতে বললেন, ‘কী চাই?’
:
শফিক- দেখো, আমার গাড়িতে
কি সুন্দর শোয়ার ব্যবস্থা
করেছি!!
:
ড্রাইভার- ধুত!! তোমার এই
ফালতু কথা শোনার জন্য
আমাকে গোসলখানা থেকে
বের হতে হলো!!!

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts