ডায়বিটিস রুখতে এড়িয়ে চলতে হবে যে খাবারগুলো !

বিশ্ব ডায়বিটিস দিবস
Share Button

আজ ১৪ নভেম্বর ওয়ার্ল্ড ডায়বিটিস ডে। বিশ্ব জুড়ে জরিপে দেখা গিয়েছে মেয়েদের মধ্যে ডায়বিটিসের প্রবণতা ভয়ঙ্কর ভাবে বাড়ছে। বিশ্বে প্রায় ২০ কোটি মহিলা এই রোগের শিকার। ডায়বিটিসে যেমন স্বাস্থ্য ভেঙে পড়ে, তেমনই খাওয়ার ক্ষেত্রেও জারি হয় অনেক বিধি নিষেধ। জেনে নিন, সুস্থ্ থাকতে কোন খাবারগুলো এড়িয়ে চলবেন।

drinks

প্যাকেট ড্রিঙ্কস এবং সফট ড্রিঙ্কস: যে কোনও প্যাকটবন্দি পানীয় যেমন ফ্রুট জুস বা সফট ড্রিঙ্কস এড়িয়ে চলুন। এই পানীয়গুলির মধ্যে বিশেষত ফ্রুট জুসে রয়েছে ফ্রুকটোজ যা রক্তে শর্করার পরিমাণ বহুগুণ বাড়িয়ে দেয়।

fast food

ট্রান্স ফ্যাট: মন যতই চাক, অতিরিক্ত তেল মশলাদার খাবার এড়িয়ে চলাই ভাল। এই খাবারে থাকে ট্রান্স ফ্যাট যা ইনসুলিনের উপর বিরূপ প্রভাব ফেলে। ফলে রক্তে গ্লুকোজের মাত্রা বাড়ে এবং ওবেসিটির প্রবণতা বৃদ্ধি পায়।

sweet

হোয়াইট ব্রেড, পাস্তা, সাদা ভাত: রক্তে শর্করার পরিমাণ নিয়ন্ত্রণে রাখতে গ্লাইসেমিক ইনডেক্সের মাত্রা কম আছে এমন খাবার খান। যেমন ব্রাউন ব্রেড, ওটমিল। গ্লাইসেমিক ইনডেক্স হল খাবার খাওয়ার পর রক্তে শর্করার পরিমাণ কতটা বাড়ছে তার আপেক্ষিক পরিমাপ। এর মাত্রা বাড়লে রক্তে গ্লুকোজের মাত্রা বাড়ে। এড়িয়ে চলুন হোয়াইট ব্রেড, পাস্তা, সাদা ভাত। এগুলো রক্তে শর্করার মাত্রা বাড়ায়।

sweet food

বেকড ফুড এবং ডেসার্ট: পেস্ট্রি, আইসক্রিম: শুনলেই জিভে জল আসে। জানেন কি কাপকেক, পেস্ট্রি, কুকিজ আপনার রসনাকে তৃপ্ত করছে ঠিকই, কিন্তু রক্তে ইনসুলিনের মাত্রা বাড়িয়ে দিচ্ছে বহুগুণ?

yougart

ফ্লেভার্ড দই: দই খেতে ভালবাসেন না এমন মানুষ বিরল। বিশেষজ্ঞদের মতে, দই খেতে হলে ঘরে পাতা দই খান। বাজার থেকে কেনা নানা রকম ফ্লেভার দেওয়া দই নৈব নৈব চ। এগুলো ডায়বিটিসের ঝুঁকি অনেক বাড়িয়ে দেয়।

junk food

জাঙ্ক ফুড: রান্নার সময় বাঁচিয়ে ফাস্ট ফুডেই কি ভরসা রাখছেন আজকাল? চাউমিন, বার্গার, ফ্রেঞ্চ ফ্রাইতেই কাজ সারছেন? তাহলে সাবধান! এই খাবারগুলো ইতিমধ্যেই ‘হাই গ্লাইসেমিক ইনডেক্স’-এর তকমা পেয়েছে। রক্তে শর্করা বাড়বে হু হু করে।

hunny

মধু, জ্যাম, জেলি: প্রাতরাশে কি রোজ এগুলোই খান? তাহলেই এখনই ডায়েট চার্ট থেকে এদের বাদ দিন। বাজারচলতি মধু, জ্যামে থাকে ‘আর্টিফিশিয়াল সুগার’, যা স্বাস্থ্যের জন্য মোটেই ভাল নয়।

chips

চিপস: বাজারে এখন অনেক রকম রিফাইনড তেল পাওয়া যায়। বলা হচ্ছে, এগুলোতে ভাজা খাবার স্বাস্থ্যকর। কিন্তু মোটেই তা নয়। জানেন কি এই সব তেলে ভাজা চিপস বা স্ন্যাকস আপনার শরীরের বারোটা বাজাচ্ছে? ডায়বিটিসের ঝুঁকি বহুগুণ বাড়িয়ে দিচ্ছে।

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Uncategorized