প্রস্রাবে জ্বালাপোড়া করলে যা করবেন

প্রস্রাবে জ্বালাপোড়ায় করণীয়
Share Button

গরম আবহাওয়াতে বা প্রচণ্ড তাপের কারণে শরীরে অনেক সময় পানিশূন্যতা দেখা দেয়। ঠিকমতো খাওয়া দাওয়ার অভাব বা অসচেতনতা এর জন্য দায়ী। এ সময় কিডনির নিঃসৃত পানি গরম থাকার জন্য মুত্র নালীর প্রদাহে অনেক সময় জ্বালাপোড়া দেখা দিতে পারে।

লক্ষণ

– পিঠের পেছন দিকে উদরের নিচে ব্যথা হয়।

– প্রস্রাব করার সময় জ্বালাপোড়া, ব্যথা হওয়াসহ অন্যান্য অস্বস্তিকর অনুভূতি হতে পারে।

– বারবার প্রস্রাবের তাগিদ অনুভব কিন্তু খুবই সামান্য প্রস্রাবের নির্গমন হয়।

– ঘোলাটে, কড়া গন্ধযুক্ত এবং রক্ত সমন্বিত প্রস্রাব হতে পারে।

– প্রস্রাবের সঙ্গে হলদেটে পদার্থ বের হতে পারে।

– নারীদের ক্ষেত্রে যৌন মিলনের সময় পীড়াদায়ক অনুভুতি বা ব্যথা হতে পারে।

করণীয়

মদ, ক্যাফেইন পরিহার করতে হবে, মসলাযুক্ত খাবার এবং অ্যাসিড সমৃদ্ধ খাবার কম খেতে হবে। এসব খাবার আপনার পিত্তথলিকে আরও বেশি সমস্যায় আক্রান্ত করতে পারে। দৈনিক আট থেকে দশ গ্লাস পানি পান করলে প্রস্রাবে জমে থাকা ব্যাকটেরিয়াগুলো গলে বেরিয়ে যায়। যদি প্রস্রাবের জ্বালাপোড়া থেকে মুক্তির উদ্দেশ্যে দেয়া অ্যান্টিবায়োটিক ওষুধগুলো আপনার শরীরে ইস্ট বা ছত্রাকের আক্রমণ ঘটায় সেক্ষেত্রে টক দই খেতে পারেন। টক দইয়ের ব্যাকটেরিয়া ছত্রাকের আক্রমণ প্রতিহত করতে সক্ষম। এছাড়াও শরীর ঠাণ্ডা রাখে এমন খাবার খেতে পারেন। বিভিন্ন ফলের শরবত, ইসুপগুল-ঘৃতকুমারী-তোকমারির শরবত এবং তাজা শাক সবজি আপনার দেহকে সুস্থ রাখতে সাহায্য করবে।

চিকিৎসা

যদি তীব্র ব্যথা করে, এই ব্যথা আপনার পাঁজরের পেছনে নিচ থেকে শুরু হয়ে যৌনাঙ্গের দিকে বয়ে গেলে কিডনিতে পাথরের সমস্যা সনাক্ত হতে পারে।

যদি আপনার জ্বর থাকে, জ্বর দ্রুত বেড়ে ওঠে, পিঠে হঠাৎ করে তীব্র ব্যথা হয় কিংবা আপনার কোমরের কাছে বা কোমরের উপরে ব্যথা করে, সেক্ষেত্রে আপনার কিডনিতে ক্ষতর সমস্যা হতে পারে। নারীদের প্রস্রাবের সময় যদি কষ্ট হয় এবং সেই সঙ্গে একটানা ব্যথা থাকে, যদি যৌন মিলনের সময় কষ্ট হয় এবং অনিয়মিত ঋতুস্রাব হয়, কিংবা হঠাৎ হঠাৎ না হয় বা হলে খুবই বেশি রক্তপাত হলে ডোমাটরিওসিস বা পেলভিক ইনফ্ল্যামেটোরি ডিজিজ হয়েছে বলে ধরা হয়।

যদি প্রস্রাবে কষ্ট হয় এবং একইসঙ্গে যোনীপথ দিয়ে নির্গত হয় সেক্ষেত্রে আপনার হয়তো যৌন সাহচার্য ঘটিত সংক্রামক কোনো রোগ হয়েছে।

পুরুষের প্রস্রাবের সময় জ্বালাপোড়া হলে, বারবার প্রস্রাবের তাগিদ অনুভব হলে, প্রস্রাব থেমে থেমে নির্গত হলে, বীর্যপাতে কষ্ট হলে কিংবা পেলভিস বা শ্রোণীতে কিংবা পিঠের নিম্নাংশে যদি ব্যথা থাকলে সেক্ষেত্রে আপনার হয়তো প্রস্টেট-এর সমস্যা রয়েছে। এক্ষেত্রে দ্রুত ডাক্তারের পরামর্শ নিতে হবে।

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts