রাতের বদভ্যাস ডেকে আনতে পারে ভয়ানক অসুখ

রাতের বদভ্যাস সুখ নয়, ডেকে আনতে পারে ভয়ানক অসুখ
Share Button

রাত্রি মানে বিশ্রাম। সেই বিশ্রামের অভাব শরীর, মন দু’য়ের পক্ষেই অশুভ। সকলেই তো চায়, সারা দিন কাজকর্মের পরে শান্তির ঘুম আসুক চোখে। কিন্তু সবার চোখে সমান ভাবে ঘুম আসে না। শারীরিক ও মানসিক ক্লান্তি কাটানোর জন্য ঘুম দরকার। আবার শরীর ও মনের ক্লান্তিই অনেক সময়ে ঘুমের ব্যাঘাত ঘটায়। আর এই কম ঘুম থেকে তৈরি হতে পারে মারাত্মক অসুখের সম্ভাবনা।

ঘুম কম অনেকেরই অসুখ। কিন্তু অনেকে আবার ইচ্ছা করেই কম ঘুমান। বেশি রাত পর্যন্ত কাজ করা বা টিভি, মোবাইল নিয়ে সময় কাটানো অনেকেরই অভ্যাস। কিন্তু ঘুমের সময়টা কমিয়ে ফেলা যে ঠিক নয়, সেটাও অনেকে খেয়াল রাখেন না। বদভ্যাস এক সময়ে অভ্যাসে দাঁড়িয়ে যায়। কম ঘুমোতে ঘুমোতে সেটা অভ্যাস হয়ে গেলেও মারাত্মক অসুখের সম্ভাবনা তৈরি হয় শরীরে। এমনটাই বলছে সাম্প্রতিক এক গবেষণা।

নরওয়ের ইউনিভার্সিটি অফ সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি (এনটিএনইউ)-র গবেষকরা সম্প্রতি জানিয়েছেন, কম ঘুম থেকে জন্ম নিতে পারে শ্বাসকষ্টের সমস্যা। প্রথম দিকে সেটা

প্রকট না হলেও বেশি বয়সে মারাত্মক হাঁপানিতে ভুগতে হতে পারে। এনটিএনইউ-এর গবেষকদের দাবি, কম ঘুম হওয়া বা ভাল ঘুম না হওয়া হাঁপানি রোগীদের একটা বড় সমস্যা। উল্টো দিকে কম ঘুম এবং খারাপ ঘুমও পরবর্তীকালে হাঁপানির জন্ম দেয়। শুধু হাঁপানিই নয়, ঘুমের অভাব আরও নানা অসুখের জন্ম দিতে পারে। মারাত্মক মানসিক অবসাদেরও কারণ হতে পারে পর্যাপ্ত ঘুম না হওয়া।এনটিএনইউ-এর এই গবেষণা সম্প্রতি প্রকাশিত হয়েছে ‘ইউরোপিয়ান রেসপিরেটরি জার্নাল’-এ। ২০ থেকে ৬৫ বছরের ১৭ হাজার ৯২৭ জন মানুষের উপরে সমীক্ষা চালান গবেষকরা। তাঁরা জানিয়েছেন, বেশি বয়সে হাঁপানিতে আক্রান্তদের মধ্যে দেখা গিয়েছে, প্রায় ৬৫ শতাংশ ক্ষেত্রে রাতে ভাল ঘুম না হওয়া রোগীরা হাঁপানিতে আক্রান্ত হয়েছেন। গবেষকদের বক্তব্য, কম ঘুম বা ভাল ঘুম না হওয়ার চিকিৎসা হাঁপানির মতো বিপজ্জনক রোগের চিকিৎসার চেয়ে অনেক সহজ।

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts