‘লোমশ মানবী’ বীথি আক্তারের ডান স্তনে অস্ত্রোপচার ৩১ জুলাই, কিন্তু রক্ত প্রয়োজন

nari-

আগামী ৩১ জুলাই টাঙ্গাইল নাগরপুরের জয়ভোগ এলাকার সেই ‘লোমশ মানবী’ বীথি আক্তারের শরীরে দ্বিতীয় দফা অস্ত্রোপচারের দিন নির্ধারণ করেছে চিকিৎসকরা। অস্ত্রোপচারের জন্য প্রয়োজন আরো পাঁচ ব্যাগ রক্ত। বীথির রক্তের গ্রুপ ‘বি নেগেটিভ’, যা সচরাচর পাওয়া যায় না।

আগামী ৩১ জুলাই বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতালের প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিটের প্রধান ডা. ইকবাল মাহমুদ চৌধুরীর নেতৃত্বে বীথির ডান স্তনে অস্ত্রোপচার করা হবে।

চিকিৎসকরা জানিয়েছে, আগামী ৩১ জুলাই ডান স্তনে অস্ত্রোপচারের দিন নির্ধারণ করা হয়েছে। এ অস্ত্রোপচারে ‘বি নেগেটিভ’ গ্রুপের আরো পাঁচ ব্যাগ রক্তের প্রয়োজন হবে।

ইকবাল মাহমুদ চৌধুরী বলেন, ‘এর আগে ২০ জুন সাড়ে সাত ঘণ্টায় বীথির বাম স্তনে অস্ত্রোপচার করে ৯ কেজি ৪০০ গ্রাম মাংস কেটে ফেলা হয়। ওই দিনই দুই স্তনে অস্ত্রোপচারের পরিকল্পনা থাকলেও পরিস্থিতি অনুকূলে না থাকায় সম্ভব হয়নি। ডান স্তনে অস্ত্রোপচারেও আনুমানিক ছয়-সাত ঘণ্টা সময় লাগবে।’

এদিকে, অনেক আশা নিয়ে মেয়ের জন্য রক্তের সন্ধানে নেমেছেন বীথির বাবা আব্দুর রাজ্জাক। ‘বি নেগেটিভ’ গ্রুপের রক্তের জন্য সবার সহযোগিতা চেয়েছেন তিনি। বীথির অস্ত্রোপচারের জন্য কোনো হৃদয়বান ব্যক্তি রক্ত দিয়ে সহযোগিতা করতে চাইলে বীথির বাবার মোবাইল নম্বরে (০১৭১০-৫২১৪৭৯) যোগাযোগ করতে অনুরোধ করা যাচ্ছে।

প্রসঙ্গত, জন্ম থেকেই বীথির মুখে দাড়ি-গোঁফসহ শরীরে লোম ছিল। ১১ বছর বয়স থেকে তার স্তন অস্বাভাবিক আকারে বড় হতে থাকে। সেই সঙ্গে স্তনে জ্বালাপোড়াও শুরু হয়। এর আগে সাত বছর বয়সে বীথির দাঁত পড়ে যায়। পরে সেই দাঁত আর গজায়নি। শরীরের নানা জটিলতা নিয়ে গত ১৬ এপ্রিল বীথিকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

টাঙ্গাইলের নাগরপুর উপজেলার জয়ভোগ গ্রামের দিনমজুর আব্দুর রাজ্জাকের প্রথম সন্তান বীথি আক্তার (১২)। বীথি জয়ভোগ পাবলিক উচ্চ বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ শ্রেণির শিক্ষার্থী।

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts