চীনে সিআইএ এজেন্ট খুন হওয়ার রহস্য কী?

সিআইএ কর্মকর্তার সহায়তা

চীনে সিআইএ এজেন্ট খুন হওয়ার সাথে যোগসূত্র রয়েছে জেরি চুন শিং লি’র আটক হওয়ার বিষয়টির বলে ধারণা করা হচ্ছে।

সিআইএর সাবেক কর্মকর্তা লি’কে সোমবার নিউইয়র্কে জন এফ কেনেডি বিমানবন্দর থেকে আটক করা হয়। ১৯৯৪ থেকে ২০০৭ সাল পর্যন্ত সিআইএ’র সাথে কাজ করার পর হংকং চলে যান লি। তবে তার বিরুদ্ধে এখন যে অভিযোগ আনা হয়েছে সেটি হলো বেআইনি ভাবে গোপন তথ্য নিজের কাছে রাখা।

কিন্তু ধারণা করা হচ্ছে মামলাটি চীনে এফবিআই-এর একটি অনুসন্ধান কার্যক্রমের সাথে জড়িত। ২০১২ সালে এটি শুরু করেছিলো এফবিআই।

দু বছর আগে সেখানে অন্তত বিশ জন তথ্য দাতা হয়তো নিহত বা জেলে যেতে বাধ্য হয় এবং এটিতে যুক্তরাষ্ট্রের গোয়েন্দা কার্যক্রমের একটি বড় ব্যর্থতা হিসেবে চিহ্নিত করা হয়। কারণ কর্মকর্তারা কোনভাবেই বুঝতে পারছিলেননা যে গুপ্তচর নাকি তথ্য হ্যাক-কোনটি এর জন্য দায়ী।

সিআইএ’র চাকরী ছেড়ে হংকং যাওয়ার পর ২০১২ সালে একবার আমেরিকায় ফিরেছিলেন লি। ওই সময় যুক্তরাষ্ট্রের বিচার বিভাগ জানায় যে এফবিআই এজেন্টরা তার হোটেল রুম তল্লাশি করে দুটি ছোট বই পেয়েছে যাতে গোপন তথ্য ছিলো। ২০১৩ সালে লি আবার যুক্তরাষ্ট্র ছেড়ে যান কিন্তু এবার এসে আটক হলেন।

বিচার বিভাগের মতে জাতীয় প্রতিরক্ষা ও নিরাপত্তা বিষয়ক তথ্য নিজের কাছে বেআইনিভাবে রাখার অভিযোগ আনা হয়েছে তার বিরুদ্ধে এবং এটি প্রমাণিত হলে তার সর্বোচ্চ দশ বছর পর্যন্ত জেল হতে পারে।

তবে অনেকে মনে করেন প্রকৃত অন্য অভিযোগ গুলো তার বিরুদ্ধে আনা হবেনা কারণ যুক্তরাষ্ট্রের কর্তৃপক্ষ চায়না এসব বিষয় খোলা আদালতে উঠে আসুক।

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts