তরুনীকে প্রথমে ধর্ষণ করল প্রেমিক বাদ গেলনা উদ্ধারকারীরাও!

ভারতে তরুনী ধর্ষণ

ভারতে প্রেমিককে বিশ্বাস করে তাঁর সঙ্গে দেখা করতে গিয়েছিলেন এক তরুনী। কিন্তু, সে বিশ্বাসের দাম যে এ ভাবে মেটাতে হবে তা ভাবতেও পারেননি ঐ তরুণী। প্রথমে সেই ‘প্রেমিক’এর কাছে ধর্ষণ। তার পর তিন ‘উদ্ধারকারী’র কাছে গণধর্ষণের শিকার হতে হল তাঁকে। পুলিশের কাছে বয়ানে এমন অভিযোগই করেছেন ওই তরুণী। পুলিশ জানিয়েছে, অভিযুক্ত চার জনকেই গ্রেফতার করা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে ছত্তীসগঢ়ের রায়পুর এলাকায়।

ঘটনার তদন্তকারী এক অফিসার জানিয়েছেন, বিধবা ওই তরুণী রায়পুরের একটি স্থানীয় হোটেল কাজ করেন। সুরেশ সাহু নামে বছর চব্বিশের এক যুবকের সঙ্গে তাঁর প্রেমের সম্পর্ক ছিল। পুলিশের কাছে বয়ানে ওই তরুণী দাবি করেন, গত শনিবার সুরেশ তাঁকে কাপা এলাকার একটি রেল ইয়ার্ডে দেখা করতে বলেন। এর পর সেখানে দেখা করতে গেলে ঐ তরুন তাঁকে ধর্ষণ করেন।

ওই তরুণীর চিৎকারে ঘটনাস্থলে আসেন তিন যুবক। ওই তিন জনের কাছে সাহায্য চান তরুনী। তরুণীর দাবি, এর পরেই সুরেশকে হুমকি দিয়ে সেখান থেকে তাড়িয়ে দেন তাঁরা। কিন্তু তাঁকে উদ্ধারের পরিবর্তে গণধর্ষণ করে ওই তিন জন। ওই তরুণীর আরও দাবি, ঘটনার কথা জানালে তার ফল ভাল হবে না বলে রীতিমতো হুমকিও দেয় ওই তিন জন।

ঘটনার পরের দিন পঁডরি থানায় অভিযোগ দায়ের করেন ওই তরুণী। তাঁর অভিযোগের ভিত্তিতে সুরেশ সাহু, হরীশ চন্দ্রশেখর, ত্রিনাথ মহানন্দ ও বিনয় যাদব নামে চার যুবককে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে বুধবার জানিয়েছে পুলিশ। পুলিশের এক আধিকারিক জানিয়েছেন, ওই চার জনেরই বয়স চব্বিশ-পঁচিশের মধ্যে। চার জনের বিরুদ্ধেই ধর্ষণের মামলা দায়ের করা হয়েছে।

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts