পাকিস্তানের পার্লামেন্টে মানবতাবিরোধী অপরাধের বিচারের সমালোচনা

পাকিস্তানের পার্লামেন্ট
Share Button

একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধের সময় মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগে রাজাকারদের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করায় আবারও বাংলাদেশের সমালোচনা করেছে পাকিস্তান। একই সঙ্গে অতীত ইতিহাসের দায় ভুলে পাকিস্তান সামনের দিকে এগিয়ে যেতে চায়, তবে এজন্য অন্য পক্ষগুলোকেও আন্তরিকতার সঙ্গে সেই প্রচেষ্টায় অংশ নিতে হবে বলে পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী খাজা আসিফ মন্তব্য করেছেন।

বৃহস্পতিবার দেশটির জাতীয় পরিষদের অধিবেশনে বাংলাদেশের সঙ্গে পাকিস্তানের সম্পর্কের ব্যাপারে সংসদ সদস্যদের প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন তিনি।

গত বছর দক্ষিণ এশীয় আঞ্চলিক সহযোগিতা সম্মেলনের (সার্ক) আয়োজন পাকিস্তানে আয়োজন করা সম্ভব না হওয়ার পেছনে বাংলাদেশের ওপর দায় চাপিয়েছেন পাক এই মন্ত্রী। তিনি বলেন, সার্কের সদস্য রাষ্ট্রগুলোর মধ্যে অন্তঃর্ঘাতে ইন্ধন দিয়েছে ঢাকা।

জাতীয় পরিষদে খাজা আসিফ বলেন, ঢাকার সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করার প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে ইসলামাবাদ। বাংলাদেশসহ আঞ্চলিক দেশগুলোর সঙ্গে সম্পর্কে কোনো ধরনের উত্তেজনা চায় না পাকিস্তান।

পাকিস্তানের এই মন্ত্রী বলেন, ‘১৯৭৪ সালে ত্রিপক্ষীয় চুক্তি বাস্তবায়ন করছে না বাংলাদেশ। গত কয়েক বছরে ১৯৭১ সালের যুদ্ধের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট বেশ কয়েকজনের সর্বোচ্চ শাস্তি কার্যকর করেছে ঢাকা।’

তিনি বলেন, ‘ত্রিপক্ষীয় চুক্তির আওতায় প্রতিশ্রুতি রক্ষা করার জন্য বাংলাদেশ সরকারের প্রতি ধারাবাহিকভাবে আহ্বান জানিয়েছে পাকিস্তান। পাকিস্তান সামনের দিকে এগিয়ে যেতে চায়, কিন্তু অন্য পক্ষ্যকেও আমাদের এই প্রচেষ্টায় শামিল হতে হবে।’

খাজা আসিফ বলেন, চলতি বছরের প্রথমার্ধ্বেই বাংলাদেশ-পাকিস্তানের ষষ্ঠ পর্যায়ের দ্বিপাক্ষিক রাজনৈতিক বৈঠক ঢাকায় অনুষ্ঠিত হতে পারে। এই বৈঠকের মাধ্যমে দুই দেশের মাঝে সম্পর্ক জোরদারের সুযোগ তৈরি হবে বলে প্রত্যাশা করেছেন তিনি।

সূত্র : এক্সপ্রেস ট্রিবিউন।

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts

One thought on “পাকিস্তানের পার্লামেন্টে মানবতাবিরোধী অপরাধের বিচারের সমালোচনা

  1. নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক

    পাকিস্তানিরা আর মানুষ হল না।

Leave a Comment