প্রেমিক প্রতারণা করায় অন্ত:সত্ত্বা তরুণীর কাণ্ড!

ভালবাসায় প্রতারণা
Share Button

প্রেমিক বিয়ে করতে রাজি না হওয়ায় গায়ে আগুন ধরিয়ে আত্মঘাতী হলেন বছর কুড়ির এক তরুণী। পুলিশ সূত্রের খবর তিনি চার মাসের অন্তঃসত্ত্বা ছিলেন। বৃহস্পতিবার সকালে ঘটনাটি ঘটেছে রিজেন্ট পার্ক থানা এলাকার নন্দীপাড়ায়। এই ঘটনায় মূল অভিযুক্ত নাবালক। তার বিরুদ্ধে ধর্ষণ, প্রতারণা এবং আত্মহত্যায় প্ররোচনার ধারায় মামলা রুজু করেছে পুলিশ। যদিও তাকে গ্রেফতার করা যায়নি।

অভিযুক্তের বাড়িতেই ভাড়ায় থাকেন ওই তরুণীর পরিবার। মৃতার পরিবারের দাবি, মাসপাঁচেক আগে দু’জনের মধ্যে সম্পর্ক তৈরি হয়। বিয়ের প্রতিশ্রুতিও দেয় অভিযুক্ত। অভিযোগ, এরপর একাধিকবার তাঁকে ধর্ষণ করে অভিযুক্ত। তরুণী অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়লে তিনি অভিযুক্তকে বিয়ের জন্য চাপ দেন। কিন্তু অভিযুক্ত তাঁকে বিয়ে করবে না বলে জানিয়ে দেয়। পাশাপাশি তরুণীর ঘরে ঢুকে তাঁকে সে চড় মারে বলেও পরিবারের অভিযোগ।

এতে অপমানিত বোধ করেন ওই তরুণী। অভিযুক্ত চলে যাওয়ার পরেই গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন লাগিয়ে দেন তিনি। মৃতের দাদা জানান, ঘটনার সময়ে কেউ বাড়িতে ছিল না। তরুণীর চিৎকারে অভিযুক্ত এবং তার বাবা ছুটে গিয়ে তাঁকে উদ্ধার করে এম আর বাঙুর হাসপাতালে পৌঁছে দিয়েই পালিয়ে যায়। পরে সেখানেই মৃত্যু হয় তাঁর। তরুণীর দাদার কথায়, ‘‘হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পরেও বোন জীবিত ছিল। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ এবং পুলিশের কাছে আত্মহত্যার কারণ বয়ান করেছে আমার বোন। আত্মঘাতী হওয়ার আগে ঘরের দেওয়াল প্রেমিকের নাম লিখে গিয়েছে।’’ পুলিশ সূত্রের খবর, ঘটনার পর থেকেই অভিযুক্ত পলাতক। এক পুলিশ আধিকারিক বলেন, ‘‘তদন্ত চলছে।’’

স্থানীয় সূত্রের খবর, তরুণীর বাবা-মা দু’জনেই অসুস্থ। পরিবার আর্থিকভাবে সচ্ছল নয়। এলাকাতেই তাঁদের চায়ের দোকান রয়েছে। আত্মঘাতী তরুণী শহরের একটি কলেজে প্রথম বর্ষের ছাত্রী ছিলেন।

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts