বাংলাদেশ ছেড়েছেন তুরস্কের ৩ কূটনীতিক

turkish_embassy_in_dhaka
Share Button

ব্যর্থ সেনা অভ্যুত্থানে জড়িত থাকার অভিযোগ ওঠার পর ঢাকায় নিযুক্ত চার্জ দ্য অ্যাফেয়ার্স আহমেদ গুরবুজসহ তুরস্কের তিন কূটনীতিক বাংলাদেশ ছেড়েছেন।

গতকাল বৃহস্পতিবার বার্তাসংস্থা রয়টার্স তুরস্কের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেভলুত কাভুসোগলুককে উদ্ধৃত করে একটি খবর প্রকাশ করে।

সেখানে তুরস্কের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, গত ১৫ জুলাইয়ের ব্যর্থ অভ্যুত্থান ষড়যন্ত্রে জড়িত থাকার অভিযোগে সারাবিশ্বে ছড়িয়ে থাকা দু’জন রাষ্ট্রদূতসহ তুরস্কের অন্তত ৩শ’ কূটনীতিককে বহিষ্কার করা হয়েছে।

তিনি বলেন, বাংলাদেশে অবস্থানরত তিনজনকে আমরা দেশে ফিরতে বলেছিলাম। কিন্তু, তাদের দু’জন নিউইয়র্কে এবং অন্যজন জাপান হয়ে মস্কোতে পালিয়ে গেছেন।

তুরস্কের এই তিন কূটনীতিক গতমাসের শেষ দিকে ঢাকা ছেড়েছেন বলে বিশ্বস্ত সূত্রে জানা গেছে।

এর আগে গত ২৮ জুলাই তুরস্কের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় আঙ্কারায় বাংলাদেশ দূতাবাসকে এক চিঠিতে জানায়, মাহমুত বুরাককে অন্তর্বর্তীকালীন সময়ের জন্য ঢাকায় তুরস্কের চার্জ দ্য অ্যাফেয়ার্স নিয়োগ করা হয়েছে। অথচ ওই সময় ওই পদে দায়িত্ব পালন করছিলেন আহমেদ গুরবুজ।

পরে ১ আগস্ট পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কাছে পাঠানো এক চিঠিতে তুরস্ক জানায়, দূতাবাসের চার্জ দ্য অ্যাফেয়ার্স আহমেদ গুরবুজ, তৃতীয় সচিব সেমিলেনুর গুরবুজ ও অ্যাটাশে পদের একজনসহ তিনজনের তুরস্কের কূটনৈতিক পাসপোর্ট বাতিল করা হয়েছে।

এদিকে প্রায় তিন মাস দেশে কাটিয়ে শুক্রবার সকালে ঢাকায় ফিরেছেন তুরস্কের রাষ্ট্রদূত দেউরিম ওজতুর্ক।

একাত্তরের মানবতাবিরোধী অপরাধে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত জামায়াত নেতা মতিউর রহমান নিজামীর ফাঁসি কার্যকর হওয়ার পর তাকে আলোচনার জন্য দেশে নিয়ে যায় তুরস্কের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

এরপর পাল্টা পদক্ষেপ হিসেবে আঙ্কারায় নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত আল্লামা সিদ্দিকীকে আলোচনার জন্য সরকার ঢাকায় ফিরিয়ে আনে। গত বুধবার আঙ্কারায় ফিরে গেছেন আল্লামা সিদ্দিকী।

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts