বিমানে হেডফোন বিস্ফোরণে মুখ ঝলসে গেল তরুণীর

বিমানে হেডফোন বিস্ফোরণে মুখ ঝলসে গেল তরুণীর
Share Button

মোবাইল ফোনের পর এবার বিমানে হেডফোন বিস্ফোরণেরও ঘটনা ঘটলো। এতে মুখ ঝলসে গেছে এক তরুণীর।

এ ঘটনায় বিমানে ব্যাটারি চালিত ডিভাইস ব্যবহারে সতর্কতা জারি করেছে অস্ট্রেলীয় কর্তৃপক্ষ।

গত ১৯ ফেব্রুয়ারি চীনের রাজধানী বেইজিং থেকে অস্ট্রেলিয়ার মেলবোর্নগামী একটি ফ্লাইটের যাত্রী এক তরুণী হেডফোন বিস্ফোরণের শিকার হন বলে বুধবার এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে বিবিসি।

এতে বলা হয়, বিমানে ঝিমাচ্ছিলেন ওই তরুণী। হেডফোন বিস্ফোরণের শব্দে জেগে ওঠেন তিনি। এ সময় হেডফোনটিতে আগুন ধরে গলে তা টেনে খুলে নিচে ফেলে দেন ওই তরুণী।

বিস্ফোরণ এবং আগুনের কারণে ওই তরুণীর চেহারা কালো হয়ে যায় এবং হাতে ফোসকা পড়ে।

তবে ওই যাত্রীর নাম প্রকাশ করেনি অস্ট্রেলিয়ান ট্রান্সপোর্ট সেফটি ব্যুরো (এটিএসবি)। ওই তরুণী সংস্থাটিকে বলেছেন, তিনি গান শোনার সময় এ বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে।

তিনি বলেন, হেডফোনটি আমার কান থেকে মুখ হয়ে গলায় জড়ানো ছিল, এ কারণে বিস্ফোরণের সময় আমি মুখ চেপে ধরি। ক্রমেই পুড়ে যাওয়ার জ্বলুনি বাড়ছে টের পেয়ে হেডফোনটি টেনে ধরে মেঝেতে ছুড়ে ফেলি। ওই সময় হেডফোন দুটি জ্বলছিল এবং স্বল্প পরিমাণে আগুন ধরে যায়।

এ সময় বিমান সেবিকারা সাহায্যের জন্য দ্রুত ছুটে এসে হেডফোনের ওপর বালতি পানি ঢেলে আগুন নিভিয়ে ফেলেন।

তবে ওই সময় হেডফোনের ব্যাটারি এবং প্লাস্টিক কাভার গলে গিয়ে তা বিমানের মেঝেতে লেগে যায়।

হেডফোন বিস্ফোরণের পর ফ্লাইটটির যাত্রীরা গলে যাওয়া প্লাস্টিক, ইলেকট্রনিকস ও চুল পোড়ার গন্ধ পান বলে এটিএসবির প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে।

প্রতিবেদনে পুড়ে যাওয়া হেডফোনের ব্র্যান্ডের নাম উল্লেখ করা হয়নি। তবে এতে বলা হয়েছে, লিথিয়াম-আয়ন ব্যাটারির ত্রুটির কারণে এ দুর্ঘটনা ঘটতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

হেডফোন বিস্ফোরণের ঘটনায় ভ্রমণ নিরাপত্তা বিষয়ক নিদের্শনা জারি করেছে এটিএসবি। এতে ব্যাপকহারে ব্যাটারি চালিত ডিভাইস ব্যবহার বেড়ে যাওয়ার কারণে ফ্লাইটের অভ্যন্তরে দুর্ঘটনার আশংকা জানিয়ে ব্যাটারি এবং পাওয়ার প্যাকের ব্যাপারে সতর্কতা জারি করা হয়েছে।

বিমানে লিথিয়াম ব্যাটারি ব্যবহারকে কেন্দ্র করে বেশ কিছু সমস্যার সৃষ্টি হয়েছে।

গত বছর এক যাত্রীর হাতব্যাগ থেকে ধোঁয়া বের হওয়ায় সিডনি থেকে ছেড়ে আসা একটি ফ্লাইট জরুরি অবতরণ করতে হয়। পরে দেখা যায়, ব্যাগের ভেতরে লিথিয়াম ব্যাটারিতে আগুন ধরে যাওয়ায় ধোয়া বের হয়।

এছাড়া যুক্তরাষ্ট্রে একটি ফ্লাইটের আসনে একটি ইলেক্ট্রনিক ডিভাইস চাপা পড়লে এর থেকে ধোয়া বের হয় বলে এটিএসবির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

গত বছর ব্যাটারি ত্রুটির কারণে বহু স্যামসাং গ্যালাক্সি নোট-৭ স্মার্টফোন অতিরিক্ত গরমে বিস্ফোরিত হয়ে আগুন ধরে গলে যাওয়ার ঘটনা ঘটে।

বিমানে এধরণের একাধিক ঘটনা ঘটায় শীর্ষস্থানীয় আন্তর্জাতিক বিমান সংস্থাগুলো এ ফোনটি বিমানে বহন করার বিষয়ে নিষেধাজ্ঞা জারি করে।

এরপর তাড়াহুড়া করেই নোট-৭ ফোনটি বাজার থেকে প্রত্যাহার করে নেয় স্যামসাং। এ ফোনটির উৎপাদনও পরিত্যক্ত ঘোষণা করেছে প্রতিষ্ঠানটি।

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts