বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রকে চড় মেরেছেন বিজেপির নেতা

বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রকে চড় মেরেছেন বিজেপির নেতা
Share Button

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সামনে ছাত্র সংসদ নির্বাচন নিয়ে চেঁচিয়ে কথা বলায় বেনারস হিন্দু বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রকে চড় মেরেছেন বিজেপির এক নেতা। মঙ্গলবার ওই বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাবর্তন অনুষ্ঠানে গিয়েছিলেন মোদী।

জানা গেছে, সমাবর্তনের বক্তব্য শেষে মঞ্চ থেকে নামছিলেন মোদী। তখন আশুতোষ সিংহ নামে ওই ছাত্র চেঁচিয়ে বলেন, মোদীজি, দয়া করে ছাত্রদের বক্তব্য শুনুন। আমাদের সমস্যার কথা শুনুন।

তার দাবি, বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্র সংসদের নির্বাচন আবার শুরু হোক। সঙ্গে সঙ্গে তাকে অনুষ্ঠানস্থল থেকে বার করে নিয়ে যান পুলিশকর্মীরা। সে সময় পুলিশের সামনেই তাকে চড় মারেন এক ব্যক্তি। তিনি বিজেপি’র কর্মী বলেই একাধিক সংবাদ ওয়েবসাইটের দাবি। জিজ্ঞাসাবাদের পর পুলিশ অবশ্য আশুতোষকে ছেড়ে দিয়েছে।

জিজ্ঞাসাবাদে আশুতোষ বলেন, আমি বিএ সেকেন্ড ইয়ার। আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্র সংসদ ফিরিয়ে আনার ব্যাপারে কর্তৃপক্ষ দ্বিধাগ্রস্ত। সেটাই প্রধানমন্ত্রীকে জানাচ্ছিলাম। এমনকী, তিনি নিজেকে বিজেপি’র ছাত্র সংগঠন এবিভিপি’র সদস্য বলে দাবি করেন। ঘটনাচক্রে, বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য জি সি ত্রিপাঠী ছাত্রজীবনে এবিভিপি’র নেতা ছিলেন।

প্রসঙ্গত, ১৯৯৭ সালে বেনারস হিন্দু বিশ্ববিদ্যালয়ে পুলিশের গুলিতে দুই ছাত্র প্রাণ হারিয়েছিলেন। ওই ঘটনার পরেই তুলে দেওয়া হয় ছাত্র সংসদ। তার বদলে ছাত্র প্রতিনিধিদের নিয়ে একটি পরিষদ গঠন করা হয়।

এদিকে আজ সকালে সীর গোবর্ধনপুরে সন্ত রবিদাসের মন্দিরে প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে বিক্ষোভ দেখানো হয়। মোদী যাবেন বলে কয়েকজন পুরোহিতকে মন্দিরে ঢুকতে দেয়া হয়নি এবং মন্দিরের বাইরে কয়েকটি দোকান খুলতে দেয়া হয়নি। এর প্রতিবাদে স্থানীয় বাসিন্দারা স্লোগান দেন—‘গো ব্যাক মোদী’!

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts

Leave a Comment