শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষার তারিখ পরিবর্তন

government-bd
Share Button

বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষের (এনটিআরসিএ) আওতায় ত্রয়োদশ শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষা-২০১৬-এর কলেজ পর্যায়ের প্রিলিমিনারি টেস্ট অনিবার্য কারণবশত আগামী ৭ মের পরিবর্তে ১৩ মে সকাল ১০টা থেকে ১১টা পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হবে।

এছাড়া স্কুল-২ ও স্কুল পর্যায়ের প্রিলিমিনারি টেস্ট ৬ মের পরিবর্তে ১৩ মে বিকেল চারটা হতে পাঁচটা পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হবে।

জানা গেছে, বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন আইন, ২০০৫ অনুসারে, বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শিক্ষক হিসেবে নিয়োগ পেতে হলে প্রাতিষ্ঠানিক সনদের পাশাপাশি শিক্ষক নিবন্ধন সনদও থাকতে হবে।

এছাড়াও দেশে এখন এমপিওভুক্ত নিুমাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক বিদ্যালয় ১৬ হাজার ১০৯টি, কলেজ ২ হাজার ৩৬৩টি এবং মাদ্রাসা আছে ৭ হাজার ৫৯৮টি। তাই এসব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষক হতে চাইলে শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষায় অবশ্যই উত্তীর্ণ হতে হবে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, আগে শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষা দুটি ধাপে হলেও এবার তিনটি ধাপে হবে। নির্ধারিত তারিখ অনুযায়ী প্রার্থীদের প্রথম ধাপে প্রিলিমিনারি টেস্ট, দ্বিতীয় ধাপে লিখিত এবং তৃতীয় ধাপে মৌখিক পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে হবে।

তিনটি পর্যায়ে পরীক্ষা হবে। স্কুল পর্যায় (সহকারী শিক্ষক), স্কুল পর্যায়-২ (ট্রেড ইনস্ট্রাক্টর, জুনিয়র মৌলভী, জুনিয়র শিক্ষক ও ইবতেদায়িকারী) এবং কলেজ (প্রভাষক) পর্যায়ে।

পরীক্ষা পদ্ধতি : প্রার্থীদের প্রথমে ১০০ নম্বরের এমসিকিউ পদ্ধতিতে এক ঘণ্টার প্রিলিমিনারি টেস্টে অংশগ্রহণ করতে হবে। চারটি বিষয়ে ২৫টি করে মোট ১০০টি প্রশ্ন থাকবে। বাংলা, ইংরেজি, সাধারণ গণিত ও সাধারণ জ্ঞান- এই বিষয়গুলো থেকে প্রশ্ন থাকবে।

প্রিলিমিনারি টেস্টে উত্তীর্ণ প্রার্থীদের আবার ১০০ নম্বরের লিখিত পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে হবে। প্রিলিমিনারি পরীক্ষায় পাস নম্বর থাকবে ৪০। লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ প্রার্থীদের এনটিআরসি কর্তৃক প্রদত্ত তারিখে মৌখিক পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে হবে।

চূড়ান্ত ফলাফল প্রকাশের তারিখ থেকে পরবর্তী ৯০ দিনের মধ্যে উত্তীর্ণ প্রার্থীর সনদ অনলাইন আবেদনপত্রে উল্লেখিত তার স্থায়ী ঠিকানার জেলা শিক্ষা অফিসে প্রেরণ করা হবে। যে সনদ দিয়ে যে কোনো বেসরকারি স্কুল-কলেজ বা মাদ্রাসায় আবেদন করা যাবে।

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts