আসছে খ্রিস্টমাস ডে,দেখুন কী ভাবে প্রস্তুত হবেন পার্টির জন্য?

পার্টি অল নাইট
Share Button

এসে গেছে সেই পার্টির মৌসুম। সেজে উঠেছে বিশ্ব। শীতের আমেজ গায়ে মেখে আনন্দে শামিল হয়েছেন শহরবাসী। পার্টির জন্যে প্রস্তুত শহরের নামী-দামি রেস্তোরাঁ থেকে ক্লাব। হাল ফ্যাশানের পোশাকের সম্ভারে সেজে উঠেছে শপিং মল আর ফুটপাথ।

শীতের আলসেমি কাটিয়ে দোকানে দোকানে ঢুঁ মেরে আসুন। জামা জুতো অ্যাকসেসরিজ সব গুছিয়ে কিনুন। আর বন্ধুদের সঙ্গে বেরোনোর প্ল্যান ফাইনাল করে নিন। খেয়াল করে দেখবেন, ঘরের মধ্যে শীত আমাদের যতই কাবু করে ফেলুক না কেন সেজেগুজে বেরিয়ে পড়লে শীত কিন্তু জব্দ।

তবে প্রচুর শীতবস্ত্র একসঙ্গে চাপিয়ে বেরিয়ে পড়লে আবার ফ্যাশানও ঠিক মনের মত হয় না। তাই নতুন কেনা পোশাকে তৈরি হয়ে নিন। হাতে কিন্তু খুব বেশি সময় নেই। ড্রেসের সঙ্গে কী রকম হেয়ার স্টাইল করবেন বা জুতো পরবেন এবং অ্যাকসেসরিজ কী পরতে পারেন রইল তার কিছু ঝলক।

খ্রিস্টমাস পার্টি

খ্রিস্টমাস পার্টি। তাই মেরুন শেডের সাহসী পোশাক চলতেই পারে। পুরোটাই নির্ভর করছে আপনার ব্যক্তিত্বের উপর। পায়ে অবশ্যই থাকুক স্টিলেটো।

খ্রিস্টমাস

ব্ল্যাক হোক কিংবা হোয়াইট। পার্টির জন্যে এক্কেবারে পারফেক্ট। উপরে ব্লেজার চড়িয়ে নিলেই ছেলেরা রেডি পার্টির জন্যে।

খ্রিস্টমাস পার্টি1

খ্রিস্টমাস মানেই লাল রঙ থাকবেই। কারণ সান্তার জামার রঙ যে লাল। আর লাল মানেই উষ্ণতা। একান্তে কোয়ালিটি টাইম কাটাতে এরকম পোশাক পরতেই পারেন।

খ্রিস্টমাস পার্টি2

মেয়েরা যদি সংখ্যায় তিনজন থাকেন তাহলে এভাবেই জটলা করে আড্ডার প্ল্যান করুন। মেরুন আর রেড হোক ড্রেস কোড।

খ্রিস্টমাস পার্টি3

হোক শীত। পুলের ধারে তো পার্টি করাই যায়। তাই ড্রেস হোক সেই মত। আর মাথায় থাকুক সান্তার টুপি। নিজেদের মধ্যে খুনসুটি তো চলবেই।পুলের জলটা কিন্তু বেশ গরম। আর বাইরে বেশ ঠাণ্ডা। পার্টিও জমবে সেই ভাবে।

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts