কফির পাঁচ অপকারিতা

কফির উপকারিতা
Share Button

সকালে বা সন্ধ্যায় অনেকই কফি খেয়ে থাকেন৷ উদ্দীপক পানীয় হিসেবে এটি বেশ জনপ্রিয়৷ কফিতে উপস্থিত ক্যাফেইন স্নায়ুকে উদ্দীপ্ত করে কর্মক্ষমতা বাড়ায়৷ প্রতিদিন নিপ্দিষ্ট পরিমাণে কফি শরীরে পক্ষে উপকারি৷ কিন্তু কফি খাওয়া নেশায় পরিণত হলে সেক্ষেত্রে কফির কিছু পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দিতে পারে৷

১. প্রতিদিন সকালে খালি পেটে কফি খেলে পাকস্থলীতে হাইড্রোক্লোরিক অ্যাসিড তৈরি হতে পারে৷ এই ধরনের অ্যাসিড খাবার পরিপাকে ব্যবহৃত হয়৷ পাকস্থলীতে প্রচুর পরিমাণে হাইড্রোক্লোরিক অ্যাসিড থাকলে খাবারের পরিপাক দ্রুত গতিতে হয়৷ ফলে বদহজম সহ নানা ধরনের পেটের সমস্যা হতে পারে৷

২. কফির বীজে ক্যাফেইন ও অন্যান্য অম্লীয় উপাদান থাকে যা পাকস্থলীর গায়ে ক্ষত সৃষ্টি করে আলসার, গ্যাসট্রিকের সমস্যা বাড়িয়ে দিতে পারে৷

৩. কফির পরিমাণ বেশি হলে কিডনিতে এই ব্যাপক প্রভাব পড়তে পারে৷ এতে কিডনির স্বাভাবিক কার্যক্ষম ব্যহত হতে পারে৷

৪. উচ্চ তাপমাত্রায় কফির বীজ থেকে কফি তৈরির সময়ে এতে ক্যানসারের প্রভাব বিস্তারকারী উপাদান তৈরি হতে পারে৷ তাই অতিরিক্ত পরিমাণে কফি খেলে ক্যানসারের সম্ভাবনাও বৃদ্ধি পায়৷

৫. কফি খেলে শরীরে কার্যক্ষমতা বৃদ্ধি পেলেও এটি স্নায়ুদতন্ত্রের উপর ক্ষতিকর প্রভাব ফেলে৷ দীর্ঘদিন ধরে একটানা প্রচুর পরিমাণে কফি খেলে স্বাভাবিক উদ্দীপনাও নষ্ট হতে পারে৷

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts