জাদুকরী ফর্সা উজ্জ্বল ত্বক পেতে অ্যালোভেরার প্যাক

জাদুকরী ফর্সা উজ্জ্বল ত্বক পেতে অ্যালোভেরার প্যাক
Share Button

 অ্যালোভেরা বা ঘৃতকুমারী সবার পরিচিত একটি ভেষজের নাম। এটি একদিকে যেমন বাইরের সৌন্দর্য বাড়ায়, তেমনি অন্যদিকে ভেষজ এই উদ্ভিদের রয়েছে অনেক পুষ্টিগুণ। রূপচর্চার প্রতিটি ক্ষেত্রে অ্যালোভেরা ব্যবহার রয়েছে। ত্বকের রোদে পোড়া ভাব দূর করতে, মসৃণ রাখতে, দাগ মুক্ত করতে এবং ত্বকে ব্রণের উপদ্রব কমাতে অ্যালোভেরার তুলনা নেই।

নিখুঁত, উজ্জ্বল ত্বক প্রতিটি মেয়ের স্বপ্ন। এই স্বপ্ন পূরণের জন্য ব্যবহার করে থাকে কত শত ক্রিম, কত শত ফেসপ্যাক। অথচ হাতের কাছে থাকা অ্যালোভেরা জেল দিয়ে পাওয়া সম্ভব নিখুঁত উজ্জ্বল ত্বক। আর সেই উপাদানটি হল অ্যালোভেরা জেল।

প্রাচীনকাল থেকে রূপচর্চায় ব্যবহার করা হয়ে থাকে অ্যালোভেরা জেল। অ্যালোভেরা ফেসপ্যাক ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করে ত্বকের দাগ দূর করতে সাহায্য করে থাকে। আসুন এমন কিছু অ্যালোভেরা ফেসপ্যাকের কথা জেনে নেওয়া যাক।

১। ডিম এবং অ্যালোভেরা জেল

১টি ডিম ভাল করে ফেটে নিন। এরপর এতে ২ টেবিল চামচ অ্যালোভেরা জেল মিশিয়ে নিন। এবার এটি মুখ এবং ঘাড়ে ভাল করে লাগিয়ে নিন। ১৫ থেকে ২০ মিনিট অপেক্ষা করুন। একটি তুলোর বল পানিতে ভিজিয়ে ত্বক থেকে প্যাকটি তুলে ফেলুন। তারপর পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। এটি ত্বকের নমীয়তা বৃদ্ধি করে বলিরেখা দূর করে থাকে।

২। অ্যালোভেরা এবং লেবুর রস

২টি অ্যালোভেরা Aloe vera পাতার জেল এবং অর্ধেকটা লেবুর রস ব্লেন্ডারে ব্লেন্ড করে পেস্ট করে নিন। এটি ত্বকে ১০-১৫ মিনিট লাগিয়ে রাখুন। শুকিয়ে পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

৩। অ্যালোভেরা, শসা এবং গোলাপ জল

২ টেবিল চামচ অ্যালোভেরা জেল, কয়েক টুকরো শসা এবং কয়েক ফোঁটা গোলাপ জল। শসা এবং অ্যালোভেরা জেল পেস্ট করে নিন। এরসাথে গোলাপ জল মিশিয়ে নিন। এই প্যাকটি ত্বকে skin লাগিয়ে রাখুন। ২৫-৩০ মিনিট পর কুসুম গরম পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। এই প্যাকটি ত্বকের ইনফেকশন দূর করে ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করে থাকে।

 

৪। অ্যালোভেরা এবং টমেটো

২ টেবিল চামচ টমেটোর রস এবং ১ টেবিল চামচ অ্যালোভেরা জেল মিশিয়ে প্যাক তৈরি করে নিন। এই প্যাকটি ত্বকে ২-৩ মিনিট ম্যাসাজ করে লাগিয়ে নিন। ১৫-২০ মিনিট পর ঠান্ডা পানি দিয়ে ত্বক পরিষ্কার করে ফেলুন।

৫।অ্যালোভেরা এবং পেঁপে

পেঁপেতে ত্বকের রং হালকা করার উপাদান রয়েছে। এছাড়া এটি ত্বক এক্সফলিয়েট হিসেবে ব্যবহার করা হয়। কয়েক টুকরো অ্যালভেরা জেল এবং পেঁপে ম্যাস করে পেস্ট তৈরি করে নিন। এবার এই প্যাকটি ত্বকে ব্যবহার করুন। কিছুক্ষণ পর পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

 

অ্যালোভেরা প্যাকগুলো নিয়মিত ব্যবহারে ত্বকের উজ্জ্বলতা brightness skin বৃদ্ধি করে ত্বকের দাগ দূর করে থাকে।

কিন্তু সব ত্বকের জন্য অ্যালোভেরার একই প্যাক কার্যকরী হবে না। তৈলাক্ত ত্বকের জন্য যেটা ব্যবহার করা যায় সেটা শুষ্ক ত্বকের জন্য ব্যবহার করা যায় না। ত্বকের ধরন বুঝে রয়েছে অ্যালোভেরা প্যাকের ভিন্নতা।

আসুন জেনে নেওয়া যাক কোন ত্বকের জন্য অ্যালোভেরার কোন প্যাক।

১। তৈলাক্ত ও ব্রণপ্রবণ ত্বকের জন্য

প্রথমে অ্যালোভেরা পাতা সিদ্ধ করে নিন। এবার এই পাতা থেকে জেল বের করে আলদা করে পেষ্ট করে নিন। এর সাথে মধু যোগ করে নিন। মধু ও অ্যালোভেরা ভাল করে মিশিয়ে প্যাক তৈরি করে নিন। এবার এটা মুখে লাগান। ২০ মিনিট পর ঠান্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে একবার করুন। এটি ত্বকের তেল কমিয়ে ব্রণের প্রবণতা কমিয়ে থাকে।

২। সেনসেটিভ বা সংবেদনশীল ত্বকের জন্য

অ্যালোভেরা জেল, শসার রস, দই, রোজ অয়েল বা এসেন্সিয়াল অয়েল এর ফেইস প্যাক সেনসেটিভ ত্বকের জন্য অনেক উপকারী। অ্যালোভেরা জেল, শসার রস, টক দই এর সাথে কয়েক ফোঁটা রোজ অয়েল বা এসেন্সিয়াল অয়েল মিশিয়ে প্যাক তৈরি করে নিন। প্যাকটি মুখে লাগিয়ে ১৫ মিনিট অপেক্ষা করুন। প্যাক শুকিয়ে গেলে ঠান্ডা পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। এটি আপনার ত্বকের অতিরিক্ত তেল, ময়লা দূর করে ত্বক পরিষ্কার করে থাকে। এবং মুখে সতেজ ভাব এনে দেয়।

৩। শুষ্ক ত্বকের জন্য

অ্যালোভেরা জেল, কটেজ চিজ, খেজুর, শসার টুকরো, লেবুর রস মিলিয়ে শুষ্ক ত্বকের জন্য প্যাক তৈরি করা হয়। প্রথমে দুই টেবিল চামচ অ্যালোভেরা জেল এবং দুই টেবিল চামচ কটেজ চিজ ব্লেন্ড করে নিন। এবার এতে কয়েকটা খেজুর, শসার টুকরা, আর লেবুর রস দিয়ে আবার ব্লেন্ড করে নিন। পেস্টের মত করে ব্লেণ্ড করুন। এই প্যাক ঘাড় এবং মুখে ভাল করে লাগান। ৩০ মিনিট পর শুকিয়ে গেলে প্রথমে ঠান্ডা পানি পড়ে কুসুম গরম পানি আবার ঠান্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

৪। শুষ্ক এবং মিশ্র ত্বকের জন্য

অ্যালোভেরা, অলিভ অয়েল এবং মাখনের মিশ্রণে তৈরি প্যাক মিশ্র ত্বকের জন্য অনেক কার্যকরী। অ্যালোভেরা জেলের সাথে অলিভ অয়েল, মাখন মিশিয়ে প্যাক তৈরি করে নিন। এবার এটি মুখ এবং ঘাড়ে লাগান। ১৫ মিনিট পর শুকিয়ে গেলে ঠান্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এটি ত্বক ময়েশ্চারাইজ করে ত্বক পরিষ্কার করে থাকে।

৫। বয়স্ক শুষ্ক ত্বকের জন্য

কিছুটা শুস্ক বয়স্ক ত্বকের জন্য অ্যালোভেরা বাদাম প্যাক অনেক বেসি কার্যকরী। বাদাম ভেঙ্গে গুঁড়ো করে নিন। এবার সেটি অ্যালোভেরা জেলের সাথে মিশিয়ে প্যাক তৈরি করুন। ঘাড় এবং মুখে লাগান। ১৫ মিনিট পর শুকিয়ে গেলে ঠান্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts

Leave a Comment