প্রেমের না পারিবারিক বিয়ে ভালো?

৩০-এর আগে বিয়ে না করলে যেসব সমম্যা হতে পারে

আজকাল বেশিরভাগই পছন্দ করে নিজেদের জীবনসঙ্গী বেছে নেন। এদের মধ্যে কেউ প্রেম করে পরে পারিবারিকভাবে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন। আবার কেউবা পরিবারের অমতেই নিজের পছন্দে বিয়ে করেন। প্রেমের বিয়ে নাকি পারিবারিক বিয়ে- এদের মধ্যে কোনটি ভালো তা নিয়ে অবশ্য অনেকে দ্বিধাদ্বন্দ্বে ভোগেন।

এক্ষেত্রে বিশেষজ্ঞরা বলেন, প্রেমের বিয়ের চেয়ে পারিবারিক বিয়েই বেশি ভালো। কারণ দুজন মানুষ যখন বিয়ের সিদ্ধান্ত নেন তখন এটা শুধু তাদের মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকে না। এর সঙ্গে দুইটি পরিবারের সম্পর্কও জড়িত থাকে।

গবেষকরা আরও বলেন, বিয়ের সম্পর্কের সফলতা শুধু ভালোবাসা নয়, পারস্পারিক সমঝোতা, মানিয়ে নেওয়ার মনোভাব, একে অপরের প্রতি শ্রদ্ধা ও সম্মান এই সবকিছুর উপরে নির্ভর করে। আর সব দিক বিবেচনা করে অনেক ক্ষেত্রেই প্রেমের বিয়ের চেয়ে পারিবারিক বিয়েই ভালো।

গবেষকদের কাছে প্রেমের বিয়ের চেয়ে পারিবারিক বিয়ে ভালো যে কারণে-

পারিবারিক বিয়ে বেশি সামঞ্জস্যপূর্ণ
সম্পর্কের গভীরতা এবং দীর্ঘস্থায়ী হওয়ার দিক থেকে প্রেমের বিয়ের চেয়ে পরিবারিক বিয়ে ভালো। পারিবারিকভাবে বিয়ে হলে দুই পরিবারের মানুষজন শুধু পাত্র বা পাত্রী দেখেন না। বরং পুরো পরিবার এবং পারিবারিক সকল কিছু দেখেই বিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়ে থাকেন।

এতে করে দুই পরিবারের জীবনযাপনের মান, একইভাবে বেড়ে উঠা পারিবারিক জীবনচর্চা, পারিবারিক স্ট্যাটাস, মূল্যবোধ এবং সংস্কার ও সংস্কৃতির অনেক মিল থাকে। ফলে পাত্র-পাত্রী এবং দুটি পরিবারের একে অপরের সঙ্গে মানিয়ে নিতে খুব বেশি কষ্ট হয় না।

পারস্পারিক শ্রদ্ধা ও সম্মান বেশি

দুটি পরিবার মিলে বিয়ের সিদ্ধান্ত নিলে স্বাভাবিকভাবেই পাত্র-পাত্রী একে অপরের প্রতি নিজেদের শ্রদ্ধা ও সম্মান বজায় রেখে চলার চেষ্টা করেন। কারণ এখানে শুধু দুজনের মান সম্মান নয়, দুটি পরিবারের মান সম্মান জড়িত থাকে।

এক্ষেত্রে প্রেমের বিয়েতে বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই সম্মান ও শ্রদ্ধা দেখা গেলেও যখন পারিবারিক নানা অসামঞ্জস্য সামনে পড়ে তখন দুজনের মনোমালিন্য দেখা দেয়। ফলে সম্পর্কে চির ধরতে আর বেশি সময় লাগে না।

বন্ধন মজবুত হয়

পরিবারের সম্মতিতে বিয়ে হলে পরিবারের সদস্যগণ খুব স্বাভাবিকভাবেই পরিবারের নতুন সদস্যকে মেনে নেন। শুধু তাই নয়, তারা মানিয়ে নিতে সাহায্য করেন। এতে সকলের মধ্যে সৌহার্দপূর্ণ সম্পর্ক বজায় থাকে। প্রেমের বিয়েতে মেনে নিলেও সম্মতি দেওয়ার পরও নানা ঝামেলা তৈরি হয়। যা পরবর্তীতে দাম্পত্য সম্পর্ককে তিক্ত করে তোলে।

ছাড় দেওয়ার মনোভাব বেশি

প্রেমের বিয়েতে একে অপরের প্রতি আশা ভরসা বেশি থাকে। যা পূরণ না হলে এই নিয়ে মান অভিমান অনেক দূর পর্যন্ত গড়ায়। এর ফলে পরবর্তীতে সম্পর্কে নানা অশান্তি আসে। কিন্তু পারিবারিক বিয়েতে এই আশা জিনিসটি একটু কমই থাকে, বরং যা পাওয়া হচ্ছে তা নিয়েই অনেকে সুখে থাকার জন্য ছাড় দিয়ে চলেন। এতে দুজনের মধ্যেই মানিয়ে নেওয়ার চেষ্টা বেশি দেখা যায়। ফলে সম্পর্কও সুখের হয়। এজন্য প্রেমের চেয়ে পারিবারিক বিয়েকে বেশি প্রাধান্য দিয়েছেন গবেষকরা।

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts