বাড়িতেই সেরে নিন ফ্রুট ফেশিয়াল!

বাড়িতেই সেরে নিন ফ্রুট ফেশিয়াল!
Share Button

১. কলা-

কলার মধ্যে ভিটামিন এ, বি ও ই পর্যাপ্ত পরিমাণে রয়েছে। ফেশিয়ালের জন্য প্রথমে ভাল করে পাকা কলা চটকে নিয়ে তার মধ্যে মধু মিশিয়ে প্যাক বানিয়ে মুখে লাগাতে হবে। ২০ মিনিট পর জলে ধুয়ে নিতে হবে। এতে ত্বক নরম ও উজ্জ্বল হয়।

 

২. লেবু-

ভিটামিন সি-এর উৎস লেবু। এটি ব্লিচের কাজ করে। মুখের দাগ, অ্যাকনে, স্কিন টোনিং ও মুখকে পরিষ্কার করতে সক্ষম। এছাড়াও এক গ্লাস উষ্ণ গরম পানিতে হাফ লেবুর রস ও এক টেবিল চামচ মধু দিয়ে মিশিয়ে খেয়ে নিজের দিনের শুরুটা করুন।

এতে উপকারটা আপনারই। এটি সেলুলয়েড গঠনে সাহায্য করে এবং ভিতর থেকে আপনার ত্বককে পরিষ্কার করে। লেবুর রস ও মধু মিশিয়ে প্যাক বানিয়ে লাগালেও মুখকে দাগমুক্ত করতে সাহায্য করে ও উজ্জ্বল করে তোলে।

 

৩. কমলালেবু-

কমলালেবুর মধ্যে ভিটামিন সি আছে, যা ত্বককে উন্নত করতে সাহায্য করে। মুখের দাগ হ্রাস করতে ও বয়সের ছাপ দূর করতে খুব উপকারী। শুকনো কমলালেবুর খোসা গুঁড়ো করে নিয়ে তা দিয়ে সপ্তাহে অন্তত দু’দিন মুখে মাসাজ করতে হবে। এটি স্ক্রাবারের কাজ করে।

 

৪. আপেল-

আপেলের রসের সঙ্গে মধু মিশিয়ে প্যাক বানিয়ে মুখে লাগান। শুকাতে দিন। শুকিয়ে গেলে ধুয়ে নিন। এটি এক ভাল হাইড্রেটিং ফেস প্যাক। যা আপনার মুখকে বলি রেখার হাত থেকে রক্ষা করবে।

 

৫. পেঁপে-

মুখের মোরা কোষ হ্রাস করতে পেঁপে ভীষণ কার্যকরী। মুখে পেঁপের ভিতরের অংশটা মুখে ১ মিনিট ধরে ঘষতে পারেন। এতে মুখ নরম ও পরিষ্কার হয়। পেঁপে ও তার মধ্যে ২ টেবিল চামচ মধু ভাল করে মিশিয়ে ২০ মিনিটের জন্য মুখে মাস্কের মত লাগিয়ে নিন।

এবার ২০ মিনিট রেখে উষ্ণ গরম পানিতে ধুয়ে ফেলতে হবে। এবার মুখে ময়শ্চারাইজার লাগিয়ে নিন। পার্থক্যটা আপনি নিজেই বুঝতে পারবেন।

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts