ঘুম থেকে উঠেই স্বপ্ন মনে থাকে না?

ঘুম থেকে উঠে স্বপ্ন মনে থাকে না

বেশিরভাগ মানুষই রাতে দেখা স্বপ্নকে ঘুম থেকে উঠে মনে রাখতে পারেন না। মনোবিদদের মতে স্বপ্নের পুরোটা মনে রাখা সম্ভবও নয়। কিন্তু বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই দেখা যায়, ঘুম ভাঙার পরে স্বপ্নের রেশটুকু থেকে গেলেও তার সানুপুঙ্খ কিছুতেই মনে আসছে না। মনোবিদরা বিস্তর গবেষণা করেছেন এই বিষয়ে। তাঁরা যে ব্যাখ্যা দিয়েছেন, তা অনেকটা এই প্রকার—

স্বপ্ন আমরা তখনই দেখি, যখন আমরা ঘুমের বিশেয একটি স্তরে থাকি। এই স্তরটির নাম ‘র‌্যাপিড আই মুভমেন্ট’ বা সংক্ষেপে আরইএম। এই সময়ে দেহ পুরোপুরি বিশ্রামে থাকে, কিন্তু মন স্বপ্নে স্বপ্নে ঘুরে বেড়ায়। রাতে যদি খুব দীর্ঘ ঘুম না-হয় এবং ঘুম যদি বার বার ভেঙে যায়, তা হলে স্বপ্ন দেখাও বাধাপ্রাপ্ত হবে। আরইএম-ঘুমের পরিমাণ কমা মানেই স্বপ্ন কমে আসা।

মানুষের ৭-৮ ঘণ্টা ঘুম বিশেষ প্রয়োজন। যাঁরা খুব বেশি হলেও ৬ ঘণ্টা ঘুমোন, তাঁদের পক্ষে স্বপ্ন মনে রাখা দুরূহ। বিস্তারিত ডিটেইলের স্বপ্ন আমরা নিদ্রাচক্রের শেষ পর্যায়েই দেখি। সুতরাং, এই পর্যায়ে ঘুমকে নিয়ে যাওয়াটা সব থেকে আগে দরকার।

• সুনিদ্রার একটা আদর্শ পরিবেশ তৈরি করুন। আওয়াজ ও ব্যাঘাতের সম্ভাব্য উৎসগুলি থেকে দূরে থাকুন। প্রয়োজনে ইয়ারপ্লাগ ব্যবহার করতে পারেন। ঘরে আলো যাতে না ঢোকে, সেদিকে খেয়াল রাখুন।

• যেখানে ঘুমোবেন, সেখানে হাতের কাছে একটা পেন ও রাইটিং প্যাড রেখে দিন। এমন জায়গায় রাখুন, যাতে প্রতিদিন আপনি হাত বাড়ালেই সেগুলোর নাগাল পান। ঘুম ভেঙেই স্বপ্লের যতটা আপনার মনে আছে, লিখে ফেলুন। কাগজ-কলমের বদলে টেপ রেকর্ডারও ব্যবহার করতে পারেন। সেক্ষেত্রে মুখে বলে নিতে হবে আপনার স্বপ্নের বিবরণ।

• অ্যালার্ম ঘড়ি সব সময়ে হাতের কাছে রাখবেন।। যদি দূরে রাখেন, তাহলে অ্যালার্ম বন্ধ করতে গিয়ে আপনি আপনার স্বপ্নকে ভুলে যেতে পারেন। সব থেকে ভাল হয়, অ্যালার্ম ছাড়া ঘুম থেকে ওঠার চেষ্টা করলে। কারোকে বলে রাখতে পারেন, মৃদু স্বরে ডেকে আপনার ঘুম ভাঙালোর জন্য। এতে স্বপ্ন মনে রাখা সহজ হয়।

• অ্যালার্ম ক্লকের গায়ে একটা কাগজে ‘কী স্বপ্ন দেখলাম আজ’ কথা ক’টি লিখে সেঁটে রাখতে পারেন। তা হলে অ্যালার্ম বন্ধ করতে গিয়ে আপনি স্বপ্ন ভুলে যাবেন না।

• ঘুমোতে যাওয়ার আগে অ্যালকোহল, চকোলেট অথবা ঘুমের ওযুধ না খেলে স্বপ্ন মনে রাখা সহজতর হয়। ঘুমোনোর আগে অবান্তর চিন্তা মাথা থেকে নামিয়ে দিন। ফোন বা ল্যাপটপ মাথার কাছে খোলা রাখবেন না। ঘুমোনোর আগে মেল চেক করা বা সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং থেকে বিরত থাকুন। ধ্যান, ও মনঃসংযোগ কাজে আসবে।

• স্বপ্ন মনে রাখার সময়ে আপনাকে সচেতন থাকতে হবে। নিজেকেই মনে মনে বোঝাতে হবে, আপনি স্বপ্ন মনে রাখতে চাইছেন।

• ঘুমোতে যাওয়ার আগে বই পড়ুন। অথবা কোনও সমস্যার কথা ভাবুন। স্বপ্ন আপনাকে ওই সমস্যার বিষয়ে সাহায্য করতেই পারে।

• স্বপ্ন মনে রাখার সময়ে প্রথম থেকে কী ঘটেছিল ভাবতে যাবেন না। পিছন থেকে ভাবুন।

• ঘুম থেকে ওঠার সময়ে তাড়াহুড়ো করবেন না।

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts