কুমিল্লা সিটি নির্বাচনে সেনা মোতায়েন নিয়ে সিইসি যা বললেন

নতুন সিইসি কেএম নুরুল হুদা পরিচয়
Share Button

আসন্ন নির্বাচনগুলোতে সেনা মোতায়েন করা হবে না, তবে তারা তাৎক্ষণিক নির্দেশে মাঠে নামার জন্য প্রস্তুত থাকবেন বলে জানিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কেএম নুরুল হুদা।

গাইবান্ধা-১, সুনামগঞ্জ-২ উপ-নির্বাচন ও কুমিল্লা সিটি নির্বাচন উপলক্ষে বৃহস্পতিবার দুপুরে আগারগাঁওয়ে নির্বাচন কমিশনের সম্মেলন কক্ষে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের তিনি একথা বলেন।

কেএম নুরুল হুদা বলেন, আপাতত সেনাবাহিনী মোতায়েনের কোনো সিদ্ধান্ত নেই। তবে তারা সব সময় প্রস্তুত থাকবেন। প্রয়োজন হলে তাদেরকে তাৎক্ষণিক নামানো হবে।  

তিনি বলেন, সামনের এই নির্বাচনের মধ্য দিয়ে বর্তমান নির্বাচন কমিশনের প্রতি আস্থার ক্ষেত্র তৈরি হবে। আজকের বৈঠকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী আমাদের সম্পূর্ণ সহযোগিতা করবে বলে জানিয়েছেন।

এক প্রশ্নের জবাবে সিইসি বলেন, যদি কারো নামে আগে থেকে কোনো মামলা না থাকে, তাহলে নতুন করে কাউকে হয়রানি করা হবে না।

সিইসি বলেন, আমাদের দেশে একসঙ্গে তিনশ’ আসনের নির্বাচনও সুষ্ঠু হওয়ার নজির রয়েছে। তাই মাত্র ২/৩ নির্বাচনে আশংকার কিছু নেই। ভোটাররা যাতে নির্বিঘ্নে ভোটকেন্দ্রে গিয়ে ভোট দিতে পারে, ভোট দিয়ে নিরাপদে বাড়ি যেতে পারে  এবং বাড়িতে গিয়ে নিরাপদে থাকতে পারেন বৈঠকে এ বিষয়ে কথা হয়েছে।

সিইসি আরো বলেন, ভোটে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীসহ যারা নির্বাচনী দায়িত্ব পালনে নিয়োজিত থাকবেন তারা কোনো অনিয়ম করবেন না। আর করলে আইন অনুযায়ী তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

বৈঠকে জঙ্গি হামলা বা নাশকতার বিষয়ে কোনো কথা হয়েছে কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, এ বিষয়ে আমাদের কথা হয়েছে। বিশেষ করে এ বিষয়ে আমরা সুন্দরগঞ্জ নিয়ে বেশি সতর্ক থাকবো।

বৈঠকে চার নির্বাচন কমিশনার, ইসি সচিবসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
 

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts