তিস্তা চুক্তি নিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যা বললেন

বিজেপি ভোট লুট করেছে, অভিযোগ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের
Share Button

তিস্তার পানি বণ্টন চুক্তি নিয়ে অনুষ্ঠানের সঞ্চালকের প্রশ্নের জবাবে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘ওরা (ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার) আমাদের না জানিয়ে ইচ্ছেমতো করে। রাজ্যকে একবার জানাবার প্রয়োজনও বোধ করে না। কাজেই আমার সাথে এ নিয়ে কোনো আলোচনা হয়নি। না জেনে এ নিয়ে আমি কোনো কথা বলব না।’

গতকাল বৃহস্পতিবার পশ্চিমবঙ্গের টেলিভিশন চ্যানেল এবিপি আনন্দের ‘মুখোমুখি মুখ্যমন্ত্রী’ শীর্ষক অনুষ্ঠানে মমতা এ কথা বলেন। তিনি জানান, বাংলাদেশের জন্য যা করার তা তিনি করবেন, তবে তাঁর রাজ্যের স্বার্থ বাঁচিয়ে।

কেন্দ্রীয় সরকার সম্পর্কে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আরও বলেন, ‘তোমরা সবকিছু রেডি করে যদি আমাকে বলো স্টাম্প মারার জন্য, স্যরি! আমাকে রাজ্যের স্বার্থ দেখতে হবে। আমি বাংলাদেশকে ভালোবাসি। বাংলাদেশকে যতটা হেল্প করার আমি করব, তবে রাজ্যকে বাঁচিয়ে।’

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘শুনছি ২৫ মে বাংলাদেশে গিয়ে তিস্তা চুক্তি হবে। অথচ আমি এখনো কিচ্ছু জানি না।’

বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সুসম্পর্কের কথা উল্লেখ করে মমতা বলেন, ৬৬ বছর পরে তাঁরা ছিটমহল সমস্যার সমাধান করেছেন। কিন্তু সব তো আর পাওয়া যায় না। যেখানে রাজ্যের স্বার্থ জড়িত আছে, সেখানে রাজ্যকে অগ্রাধিকার দিতে হবে। তিনি বলেন, ‘যেখানে আমি পারব এবং সেটা দুই দেশেরই ভালো হবে, সেটা আমি করে দেব।’
২০১১ সালের ৬ সেপ্টেম্বর ভারতের তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংয়ের ঢাকা সফরে তিস্তা চুক্তি সই হয়নি মমতার আপত্তিতে। পশ্চিমবঙ্গের স্বার্থ প্রস্তাবিত তিস্তা চুক্তিতে সুরক্ষিত হয়নি, এ অভিযোগে শেষ মুহূর্তে মমতা চুক্তিতে সায় দেননি।
আগামী ৭ এপ্রিল ভারত সফরে যাবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এই সফরকালে ভারতের সঙ্গে কয়েকটি চুক্তি ও সমঝোতা স্বাক্ষর হতে পারে।

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts