নারায়নগঞ্জে অপারেশন ‘হিট স্ট্রংয়ে’ তামিমসহ ৩ জঙ্গি নিহত

tamim is member

নারায়ণগঞ্জ শহরের পাইকপাড়ার বড় কবরস্থানে একটি বাড়িতে অভিযানে গুলশান ও শোলাকিয়া হামলার ‘মূলহোতা’ তামিম আহমেদ চৌধুরীসহ তিনজন জঙ্গি নিহত হয়েছেন।

শনিবার সকাল ৯টা ৩৫ মিনিট থেকে ১০টা ৩৫ মিনিট পর্যন্ত এক ঘণ্টা ধরে অপারেশন ‘হিট স্ট্রং-২৭’ নামে এ অভিযান পরিচালনা করে পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিট।

নারায়ণগঞ্জ সদর থানার ওসি আসাদুজ্জামান যুগান্তরকে জানান, পাইকপাড়ার ‘দেওয়ান বাড়িতে’ অভিযানে জঙ্গিনেতা তামিম আহমেদ চৌধুরীসহ তিনজন নিহত হয়েছেন।

তবে তিনি তাৎক্ষণিকভাবে নিহত বাকি জঙ্গিদের নাম-পরিচয় জানাতে পারেননি।

অভিযান শেষে নারায়ণগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) ফারুক হোসেন জানান, অভিযান শেষ হয়েছে। আইজিপি একেএম শহীদুল হক এসেছেন। তিনি এ বিষয়ে ব্রিফিংয়ে বিস্তারিত জানাবেন।

কানাডা প্রবাসী বাংলাদেশী তামিম চৌধুরীকে গুলশান ও শোলাকিয়া ঈদগাহে হামলার মূল পরিকল্পনাকারী বলে পুলিশ দাবি করে আসছে। তাকে ধরতে পুরস্কারও ঘোষণা করা হয়েছিল।

গুলশান ও শোলাকিয়ায় হামলার পর বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালাচ্ছে পুলিশ। এরই অংশ হিসেবে পরিচালিত অভিযানে রাজধানীর কল্যাণপুরের ৫ নং রোডের ৫৩ নম্বর ছয়তলা বিশিষ্ট ‘জাহাজ বাড়ি’ ভবনে নয় জঙ্গি নিহত হয়।

সে সময় পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়, এ অভিযানের সময় বেশ কয়েকজন জঙ্গি পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়। রাজধানীর কল্যাণপুরের জঙ্গি আস্তানায় অভিযানের পর পালিয়ে যাওয়া জঙ্গিরাই নারায়ণগঞ্জে অবস্থান করছেন- এমন গোপন খবরে শনিবার ভোরে নারায়ণগঞ্জ শহরের পাইকপাড়ার বড় কবরস্থানের পাশের একটি ভবন ঘিরে অভিযান শুরু করে কাউন্টার টেররিজম ইউনিটের একটি দল।

সকালে নারায়ণগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) ফারুক হোসেন জানান, সকাল ৯টা ৩৫ মিনিটের দিকে পাইকপাড়ার বড় কবরস্থানের পাশের দেওয়ান বাড়িতে জঙ্গিদের উপস্থিতি সন্দেহে অভিযান শুরু হয়। ওই বাড়ির মালিক নুরুদ্দিন দেওয়ান।

তিনি জানান, অভিযান শুরুর পর ওই বাড়ি থেকে কালো ধোঁয়া বের হতে দেখা গেছে। ধারণা করা হচ্ছে, জঙ্গিরা তথ্য-প্রমাণ লোপাটের জন্য তাদের কাছে থাকা মূল্যবান কাগজপত্র পুড়িয়ে ফেলেছে।

ওই এলাকার স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, সকাল সাড়ে ৯টার দিকে ওই বাড়ি থেকে বেশ কয়েক রাউন্ড গুলির শব্দ তারা শুনতে পান। এছাড়া ৪টি বিস্ফোরণের শব্দও শুনেছেন তারা।

সন্ত্রাস দমনে গঠিত ডিএমপির বিশেষ শাখার প্রধান মনিরুল ইসলাম জানান, জেএমবির এক সদস্যকে গ্রেফতারের পর তার দেয়া তথ্যের ভিত্তিতেই এই অভিযান পরিচালনা করা হয়।

 

লেখাটি পছন্দ হলে প্লিজ Share করুন

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ :

Related posts